শুভেন্দু-অভিষেক বৈঠক, সৌগত জানালেন, ‘সব মিটে গিয়েছে’

অবশেষে বরফ গলার ইঙ্গিত ৷

রাজনৈতিক মহলকে বিস্মিত করে মঙ্গলবার মুখোমুখি বৈঠকে বসেছিলেন শুভেন্দু অধিকারী এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ সূত্রের খবর, উত্তর কলকাতার এক বাড়িতে টানা দু’ঘন্টা তাঁরা বৈঠক করেন৷ বৈঠকে ছিলেন সৌগত রায়, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং প্রশান্ত কিশোর৷

পরে সৌগত রায় এই বৈঠকের কথা স্বীকার করে বলেছেন, “দলেই থাকছেন শুভেন্দু৷ কোনও অবস্থাতেই দল ছাড়ছেন না,বিধায়ক পদেও ইস্তফাও দিচ্ছেন না৷ বৈঠক হয়েছে সৌহার্দ্যমূলক পরিবেশে৷” শুভেন্দুর সঙ্গে কথা চালিয়ে যাওয়ার দায়িত্ব মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিয়েছিলেন প্রবীণ সাংসদকে সৌগত রায়কে৷
সৌগতবাবু রাতে বলেছেন, “বৈঠকের দরকার ছিলো, তাই এই বৈঠক৷ উত্তর কলকাতার এক বাড়িতে এই বৈঠক হয়েছে৷ সুন্দর আলোচনা হয়েছে৷ শুভেন্দুর অন্য কোনও দলে যাওয়ার প্রশ্নই নেই৷ দল এতে আরও শক্তিশালী হবে৷ সব ভুলে এক হয়ে সবাই কাজ করবো৷ বাকিটা শুভেন্দু যা বলার বলবে৷
দু’ঘন্টার ওই আলোচনায় শুভেন্দু জানিয়েছেন, তিনি দলেই থাকছেন৷ কোনও অবস্থাতেই দল ছাড়ছেন না৷”
আজ পূর্ব মেদিনীপুর থেকে শুভেন্দু সোজা আসেন কলকাতায়৷অনেকের ধারনা হয়, শুভেন্দু বিধানসভায় গিয়ে বিধায়ক পদে ইস্তফা দেবেন আজই৷ কিন্তু তারপরেই কঠোর গোপনীয়তায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে টানা ২ঘন্টা বৈঠক করেন শুভেন্দু ৷ তাৎপর্যপূর্ণভাবে ওই বৈঠকে হাজির ছিলেন প্রশান্ত কিশোর, সাম্প্রতিক অতীতে যার বিরুদ্ধে ক্ষোভও প্রকাশ করেছেন শুভেন্দু একাধিকবার৷

বৈঠক নিয়ে এখনও মুখ খোলেননি শুভেন্দু ৷ যা বলছেন সবটাই সৌগত রায়৷ শুভেন্দু অধিকারী আগামীকাল বা পরশু কী বলেন, সেদিকেই এখন নজর রাখছে রাজনৈতিক মহল৷

আরও পড়ুন- মাদার টেরেসার পর ফের বাংলা থেকে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি ইউনিয়ন ডিবেটে মমতা