উদয়ন গুহকে প্রার্থী না করার দাবি তোলা নেতাদের কড়া বার্তা তৃণমূলের

একুশের ভোটের (WB Assembly Election 2021) মুখে দলের অন্দরে কোনও ধরনের বিশৃঙ্খলাই বরদাস্ত করছে না তৃণমূল(TMC)৷ দলে থেকে বেসুরে কথা বললে শাস্তির মুখে পড়তেই হবে৷ কোচবিহারের (Coochbehar) দিনহাটার (Dinhata) তৃণমূল বিধায়ক উদয়ণ গুহকে (Udayan Guha) ফের প্রার্থী না করার দাবিতে সরব দলীয় নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে কঠোর মনোভাব প্রদর্শন করলো তৃণমূল৷ জানা গিয়েছে, দিনহাটায় তৃণমূলের কর্মী-বৈঠকে স্থানীয় বিধায়ক উদয়ন গুহকে যাতে এবারের নির্বাচনে প্রার্থী না করা হয় সেই দাবি তোলে শাসকদলের একাংশ। কোচবিহারে তৃণমূলে গোষ্ঠীকোন্দলের ঘটনা নতুন নয়, এর আগে বহুবার প্রকাশ্যে এসেছে।ফের দলের অন্দরে ভিন্ন সুর সামনে চলে আসে। সঙ্গে সঙ্গে আসরে নামেন জেলা তৃণমূল সভাপতি পার্থপ্রতিম রায় (Parthapratim Roy)। দলের অন্দরের বেসুরোদের তিনি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন, “দিনহাটায় যা হয়েছে তা বরদাস্ত করবে না দল”।

 

দিনহাটার নয়ারহাটে এক দলীয় কর্মী বৈঠকে হাজির ছিলেন স্থানীয় বিধায়ক উদয়ন গুহ। জানা গিয়েছে, সেখানেই তৃণমূলের দিনহাটা ২ ব্লকের প্রাক্তন সভাপতি মীর হুমায়ুন কবীর, দিনহাটা ২ ব্লক যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক মিলন সেনের নেতৃত্বে তৃণমূলের একাংশ দাবি তোলেন, উদয়ন গুহকে ফের প্রার্থী করা চলবে না। এই ঘটনায় ফের সামনে চলে আসে কোচবিহার তৃণমূল কংগ্রেসের অর্ন্তদ্বন্দ্ব। তবে এবার দলের এই কোন্দল কড়া হাতে মোকাবিলা করেছে নেতৃত্ব। কোচবিহার তৃণমূল কার্যালয়ে ‘‌বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়’‌ স্লোগানের উদ্বোধন করে জেলার সভাপতি পার্থপ্রতিম রায় বলেছেন, ” দিনহাটায় যা হয়েছে তা কোনওভাবেই বরদাস্ত করা হবে না৷ দলের মধ্যে ভিন্ন মত থাকবেনা৷ থাকলেও তা বরদাস্ত করা হবে না।’” এরপরই দলের বেসুরো নেতা-কর্মীদের জানিয়ে দিয়েছেন, “কোচবিহারে আসছেন রাজ্য তৃণমূল সভাপতি সুব্রত বক্সি (Subrata Bakshi)। তাঁর সঙ্গে কথা বলেই বেসুরোদের বিরুদ্ধে প্র‌য়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’‌ এ ব্যাপারে উদয়ন গুহ বলেছেন, “আমি বিধায়ক হব কি না, তা আমি কী করে বলব। জনগণ ভোট দিলে বিধায়ক হব, কিন্তু যদি আমাকে দল টিকিট দেয় তারপর সেই সম্ভাবনা।”জন পাশাপাশি তাঁর বিরোধী গোষ্ঠীকে আক্রমণ করে তিনি বলেছেন, “জনগণ যদি ভোট দেয়, তাহলে কারও ইচ্ছা বা অনিচ্ছার ওপর এ সব নির্ভর করবে না”৷

 

Advt