কাগজের পিচবোর্ডে আঁকা দুর্গার ছবি দিয়েই শুরু হয়েছিল পুজোর! কোথায় জানেন?

কাগজের পিচবোর্ডের উপর নিজের আঁকা রঙ, তুলি দিয়ে দুর্গার ছবি এঁকে নিজেই পুজো শুরু করেছিল শ্রীরামপুর চাঁতরার নবম শ্রেনীর ছাত্রী ঋত্বিকা মল্লিক। তারই হাত ধরে মল্লিক বাড়িতে এসেছিল উমা ও তার পরিবার। মহালয়ার দিন থেকে শুরু হয় মল্লিক বাড়ির দুর্গাপুজো। রথযাত্রার দিন প্রতিমার কাঠামো ও রঙ দিয়ে সূচনা হয় দুর্গা পুজোর প্রস্তুতি। এবারের পুজো নিয়ে সপ্তম বর্ষে পা দিয়েছে মল্লিক বাড়ির পুজো। তৃতীয় শ্রেনীতে পড়ার সময় থেকে বাবার কাছে ছবি আঁকার হাতেখড়ি ঋত্বিকার। প্রথমে আর্ট পেপারের উপর মোম পেন্সিলে দুর্গার ছবি এঁকে পুজো শুরু। এরপর সময়ের সাথে সাথে পালটেছে ছবি আঁকার চিন্তাভাবনা। 2013 সাল থেকে কাগজের পিচবোর্ডের উপর দুর্গা, সরস্বতী, লক্ষ্মী, কার্তিক, গনেশ ও তাঁদের বাহনদের ছবি এঁকে রঙ করে, তাতে শাড়ি পড়িয়ে তৈরি দুই ফুটের দুর্গা ও পরিবার। নিয়ম মেনে ঋত্বিকা নিজেই শুরু করে পুজো। তার তৈরি দূর্গা প্রতিমা দেখতে পুজোর দিনগুলিতে দর্শনার্থীদের ভীড় জমে যেত শ্রীরামপুরের মল্লিক বাড়িতে। দূর্গা পুজোর পর লক্ষ্মী ও কালী প্রতিমা তৈরি করে ঋত্বিকা নিজেই পুজো করত। তার এই প্রতিমা তৈরির উৎসাহ জুগিয়েছে তার বাবা-মা সহ পাড়া প্রতিবেশীরাও।