আর্টিস্টস ফোরামের নির্বাচনে রাজনীতির ছায়া, প্রার্থী হলেন জিৎ, পরান,সোহম

ওয়েস্ট বেঙ্গল মোশন পিকচার আর্টিস্টস ফোরামের নির্বাচন ঘিরেও কি রাজনীতির রং ?
এবারের নির্বাচন নিয়ে এই প্রশ্নই সামনে চলে এসেছে৷

আর্টিস্টস ফোরামের অনেক সদস্যই এবার কার্যনির্বাহী সভাপতির পদে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের জায়গায় ইন্দ্রাণী হালদারকে আনতে চেয়েছিলেন৷ কিন্তু ফোরামের তরফে যে প্রার্থীতালিকা প্রকাশ করা হয়েছে, সেখানে নাম নেই ইন্দ্রাণীর। কার্যনির্বাহী সভাপতি পদের জন্য ভরত কল, শঙ্কর চক্রবর্তী, অঞ্জনা বসু, পার্থসারথি দেব মনোনয়ন পেশ করছেন।

সবচেয়ে বড় চমক, ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন অভিনেতা জিৎ৷ একই পদের জন্য পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, সুদেষ্ণা রায় এবং সোহম চক্রবর্তীর মনোনয়নও জমা পড়েছে। আর্টিস্ট ফোরামের সূত্রের খবর, ‘তারকা’ প্রার্থীর চাহিদা জিৎ মিটিয়ে দিচ্ছেন বলেই শেষ পর্যন্ত ইন্দ্রাণী হালদারের নাম বাদ গিয়েছে।

কার্যকরী সমিতির সদস্য পদের মনোনয়নে নাম নেই রূপাঞ্জনা মিত্ররও। যদিও প্রথমে তিনি বলেছিলেন মনোনয়ন জমা দেবেন। সিদ্ধান্ত বদল করলেন কেন? অভিনেত্রী জানালেন, “আমি দীর্ঘদিন কার্যকরী সমিতির সদস্য ছিলাম। অনেক ধরনের কাজের দায়িত্বও নিয়েছি। তবে এবার আর মনোনয়ন জমা দিইনি। মনে হল, সবসময় কোনও পদে থাকা জরুরি নয়। বাইরে থেকেও পুরো বিষয়টা দেখা জরুরি। খেয়াল করলাম মামণিদিও তো (ইন্দ্রাণী হালদার) মনোনয়ন জমা দেননি।”
ফোরামের সহকারী সচিবের পদে দেবদূত ঘোষের নামও রয়েছে৷

এবারের প্রার্থীতালিকা দেখেই অনেকে মনে করছেন, আর্টিস্টস ফোরাম সরাসরি কোনও রাজনৈতিক সংগঠন না হলেও, রাজনীতির রং লেগেই গিয়েছে।

আরও পড়ুন-রাজনৈতিক সুবিধাবাদের শিকার সুভাষচন্দ্র, কনাদ দাশগুপ্তর কলম