গিলগিট-বালুচিস্তানকে নতুন প্রদেশ তৈরির ভাবনায় প্রবল চাপে ইমরান সরকার

গিলগিট-বালুচিস্তান নিয়ে নিজের দেশেই কোণঠাসা ইমরান সরকার। সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের স্বায়ত্ত্বশাসনের অধিকার কেড়ে নেওয়ার কাজে নেমেছে পাক সরকার। কিন্তু সেই কাজ করতে গিয়েই এবার প্রবল চাপের মুখে পড়ল ইমরান খান সরকার ও পাক সেনাবাহিনী। সরকারের এই সিদ্ধান্তে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের মেয়ে তথা বিশিষ্ট পাক রাজনীতিক মরিয়াম নওয়াজ শরিফ। শুধু তাই নয়, প্রকাশ্যে সরকার এবং সেনার কড়া সমালোচনাও করেন তিনি।

গত সপ্তাহে জানা যায়, গিলগিট-বালুচিস্তানকে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রদেশে পরিণত করতে চলেছে পাকিস্তান। সরকারের এই সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ মরিয়াম। তিনি বলেন, গিলগিট-বালুচিস্তানের মানুষের মৌলিক অধিকার কেড়ে নেওয়া হচ্ছে। সেনা যেভাবে গিলগিট-বালুচিস্তানকে পাকিস্তানের প্রদেশে পরিণত করতে চাইছে, তাতে সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের মানুষের স্বাধীনতা হরণ করা হবে। এই কাজ করলে সেখানকার মানুষের প্রতি চরম অন্যায় করা হবে। এই বিষয় নিয়ে পাক সংসদে আলোচনার প্রয়োজন ছিল বলে মন্তব্য করেন মরিয়াম। তাঁর কথায়, ‘‘গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে শুধুমাত্র পাক সেনা দফতরের সঙ্গে আলোচনা ঠিক নয়।’’

স্পষ্টতই, মরিয়ামের এই মন্তব্যে চাপের মুখে পড়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান সরকার এবং পাক সেনাপ্রধান জেনারেল কামার বাজওয়া। গত সপ্তাহে পাক মন্ত্রী জানিয়েছিলেন, গিলগিট-বালুচিস্তানকে নতুন প্রদেশ গঠনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করবেন ইমরান খান। কিন্তু সরকারের এই সিদ্ধান্ত কতটা ঠিক তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে দেশের অন্দরেই। ইতিমধ্যেই স্ট্যান্ড উইথ গিলগিট-বালুচিস্তান এই হ্যাশট্যাগ দিয়ে পাক সরকারের এই পদক্ষেপের বিরোধিতা শুরু হয়েছে। এর আগেও বিরোধীরা অভিযোগ করেছে, সেনার অঙ্গুলি হেলনে চলছে ইমরান সরকার। এমনকী সরকারের বিরুদ্ধে জোট বাঁধা শুরু করেছিল তারা। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, গিলগিট-বালুচিস্তান নিয়ে পাকিস্তানের ভাবনা বিরোধীদের হাতে নতুন অস্ত্র তুলে দিল।

Previous articleপুজোর মুখেই ট্রাক ধর্মঘট, মূল্যবৃদ্ধির আশঙ্কা
Next articleমুম্বইতে প্রয়াত অস্ট্রেলিয়ার প্ৰাক্তন তারকা ক্রিকেটার ডিন জোন্স