নন্দীগ্রামে জিতছেন মমতাই; মত তৃণমূলের

  • মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রামে জিতছেন।
  • বিজেপি পারসেপশন তৈরি করার চেষ্টা করছে, কারণ সারা বাংলায় পারসেপসন ফিল্ডে বিজেপি এখনও পিছিয়ে।
  • নন্দীগ্রাম ১ এ (১০টি গ্রাম পঞ্চায়েত আছে এখানে) তৃণমূল প্রচুর লিড নিয়েছে। এটা বরাবরই তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি। এখানে বরং বিজেপিই বহু জায়গায় বুথ এজেন্ট দিতে পারেনি।
  • নন্দীগ্রাম ২ এ (৭টি গ্রাম পঞ্চায়েত আছে এখানে) বিজেপির হাওয়া অনেক বেশি ছিল। সকালের দিকে এখানকার কিছু বুথেই তৃণমূল এজেন্ট দিতে পারছিল না।
  • শুভেন্দু অধিকারী দুপুর একটা নাগাদই ঘোষণা করে দেয়, যে তিনি জিতে গেছেন। তখনো অবধি মুখ্যমন্ত্রী কিন্তু বেরোন নি।
  • তৃণমূল নেত্রী বেরোলেন। বয়াল মাকতব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গেলেন (যেখানে তৃণমূলের বুথ এজেন্ট কে বসতে দেয়নি বলে অভিযোগ।) সেখানেই বসে রইলেন ঘন্টা দুই। উল্লেখ্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিন্তু নন্দীগ্রাম ১ এ গেলেন না। গেলেন নন্দীগ্রাম ২ তে।
  • মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বসে থাকার ফলে, নন্দীগ্রাম ২ তে শুভেন্দু অধিকারীর প্ল্যান ভেস্তে যায়। বিজেপি প্ল্যান করে নেয়, নন্দীগ্রাম ২ থেকে দুপুরবেলা বিপুল ভোট ছাপ্পা করে নেবে। কিন্তু দিদি নিজে ওখানে চলে যাওয়ায় প্ল্যান ভেস্তে যায়।
  • মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেরিয়ে গেলেন। ভিকট্রি সাইন দেখালেন। বললেন, We are Winning. V for victory!
  • শুভেন্দু বয়ালে ঢুকলেন। সকালের বডি ল্যাঙ্গুয়েজ উধাও। উলটে শুভেন্দু অধিকারী নির্বাচন কমিশনকে দুষলেন। কেন মুখ্যমন্ত্রী বসেছিলেন, সেই প্রশ্ন তুললেন।
  • সন্ধেবেলা বিজেপির জয়প্রকাশ মজুমদার পুরো নন্দীগ্রামের ভোটের জন্য পুরোপুরি পুলিশ কে দুষলেন। দিদি তখন দলীয় কার্যালয়ে বসে সহকর্মীদের সঙ্গে সন্ধেবেলা টিফিন খাচ্ছেন।

আরও পড়ুন- অন্য আসনে দাঁড়াতে পারেন মমতা! প্রধানমন্ত্রীর দাবি ওড়াল তৃণমূল

Advt