প্রয়াত হলেন বর্ষীয়ান বলিউড অভিনেত্রী শশীকলা

শোকের ছায়া বলিউডে। চলে গেলেন বর্ষীয়ান বলিউড অভিনেত্রী শশীকলা। রবিবার মুম্বইয়ের কোলাবায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর। দীর্ঘদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত অসুখে ভুগছিলেন তিনি। পদ্মশ্রী প্রাপ্ত এই অভিনেত্রীর মৃত্যুতে শোকজ্ঞাপন করেছেন বলিউড জগতের নামিদামি ব্যক্তিরা।

১৯৫৩ সালে অভিনয় জগতে হাতেখড়ি। ‘তিন বাতি চার রাস্তা’ সিনেমা করে প্রথম নজর কাঁড়েন শশীকলা। এরপর একের পর এক অভিনয়। কিন্তু ১৯৬২ সালের ‘আরতি’ ছবিতে অভিনয়ই তাঁকে খ্যাতি এনে দেয়।তারপর আর পেছনে তাকাতে হয়নি কিংবদন্তী এই অভিনেত্রীকে। খল চরিত্র হোক কিংবা কমেডি, শশীকলার অভিনয় ক্ষমতা স্বীকৃত হয়েছে বারবার। ২০০৭ সালে ভারতীয় সিনেমায় তাঁর অবদানের জন্য পদ্মশ্রীতে ভূষিত হন এই বর্ষীয়ান অভিনেত্রী। পরবর্তী সময়ে ২০০৯ সালে ভি শান্তারাম লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট পুরস্কারও পান তিনি।
মীনা কুমারী, অশোক কুমার, প্রদীপ কুমারের মতো অভিনেতা-অভিনেত্রীদের সঙ্গে অভিনয় করেছেন তিনি। এছাড়াও ‘খুবসুরত’, ‘অনুপমা’, ‘আয়ি মিলন কি বেলা’র মতো সুপারহিট ছবিতে তাঁর অভিনয় দর্শকদের নজর কাড়ে। নব্বই দশকে শাহরুখ-সলমনদের সঙ্গে রুপোলি পরদায় দেখা গিয়েছে তাঁকে। ‘বাদশাহ’ (১৯৯৯) ছবিতে শাহরুখ খানের মায়ের ভূমিকায় ছিলেন শশীকলা। পরবর্তী সময়ে ব্লকবাস্টার ‘কভি খুশি কভি গম’ (২০০১) ছবিতেও দেখা গিয়েছিল তাঁকে।



Advt