ভোট-পরবর্তী হিংসা: সুপ্রিম কোর্টে মামলার বিচার প্রক্রিয়া থেকে সরে দাঁড়ালেন বাঙালি বিচারপতি

ভোট-পরবর্তী হিংসার(post poll violation) ঘটনাকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় দৃষ্টি আকর্ষণে মরিয়া রাজ্য গেরুয়া শিবির। অপরাধী দুই বিজেপি কর্মীর মৃত্যুর ঘটনায় ভোট-পরবর্তী হিংসার অভিযুক্তদের শীর্ষ আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় আবেদন জানানো হয়েছে সিবিআই অথবা সিট তদন্তের জন্য। সেই মামলার বিচার প্রক্রিয়া থেকে সরে দাঁড়ালেন সুপ্রিম কোর্টের(Supreme Court) বাঙালি বিচারপতি ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায়(Indira Banerjee)।

বিচারপতি ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায়

জানা গিয়েছে, সম্প্রতি দুই বিজেপি কর্মী অভিজিৎ সরকার ও হরণ অধিকারী খুনের ঘটনায় তৃণমূলের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে বিচারপতি ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিচারপতি এমআর শাহের ডিভিশন বেঞ্চে রিট পিটিশন দায়ের করেছিলেন বিশ্বজিৎ সরকার নামে এক ব্যক্তি। হরণ অধিকারীর স্ত্রী এই মামলায় দ্বিতীয় পিটিশনকারী। কিন্তু এই মামলা থেকেই এদিন সরে দাঁড়ান ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায়। যুক্তি হিসেবে তিনি জানান, “এই মামলায় আমার কিছু অসুবিধে রয়েছে।” তিনি নিজে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা সেহেতু এই মামলার বিচার প্রক্রিয়ায় নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে। ঠিক সেই কারণেই মামলা থেকে তিনি নিজেকে সরিয়ে নিলেন বলে অনুমান করা হচ্ছে।

ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায় সরে যাওয়ার ফলে আপাতত মামলাটিকে স্থগিত রাখা হয়েছে এবং দিদা বন্দোপাধ্যায়ের নেই এমন কোন বেঞ্চে মামলাটি পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে শীর্ষ আদালতের রেজিস্টারকে। যদিও এই মামলায় রাজ্যের আইনজীবীর তরফে আদালতে আগেই জানানো হয়েছিল, খুনের ঘটনায় ইতিমধ্যেই থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে এবং সেই অভিযোগের ভিত্তিতে ৩ জন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গোটা ঘটনার তদন্ত চলছে।