সত্য সেলুকাস! করোনা অগ্রাহ্য করা মানুষদের ধন্যবাদ জানালেন দিলীপ ঘোষ!

সোশ্যাল মিডিয়ায় দিলীপ ঘোষ নিজেই বুক ফুলিয়ে সেই ছবি পোস্ট করেছেন

করোনা (Corona) আবহে আগামী ২২ জানুয়ারি রাজ্যের চার পুরনিগমের (Corporation Election) ভোটগ্রহণ। যদিও হাইকোর্টে (Kolkata High Court) এখনও পুরভোটের মামলা ঝুলে। শেষ পর্যন্ত স্থগিত হয়ে গেলে আলাদা ব্যাপার, কিন্তু বসে নেই রাজনৈতিক দলগুলি। সবাই নিজেদের মতো করে প্রচার করছে। রাজ্য নির্বাচন কমিশনের (EC) গাইড লাইনে স্পষ্ট জানানো হয়েছে, প্রার্থী সহ ৫ জনের বেশি একসঙ্গে বেরিয়ে প্রচার করতে পারবেন না। কিন্তু কমিশনের সেই গাইডলাইনকে কার্যত বুড়ো আঙুল দেখিয়ে দলবল নিয়ে আসানসোলে গত দু’দিন ধরে প্রচার করছেন বিজেপির (BJP) সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)।

সোশ্যাল মিডিয়ায় দিলীপ ঘোষ নিজেই বুক ফুলিয়ে সেই ছবি পোস্ট করেছেন। এবং তিনি “গর্ব” করে লিখেছেন, আসানসোলের ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের মানুষ কোভিড অগ্রাহ্য করে নাকি বেরিয়ে এসেছে বিজেপি প্রার্থীকে আশির্বাদ করার জন্য। যে সকল মানুষ কবিতা অগ্রাহ্য করে বেরিয়ে এসেছে তাঁদেরকে দিলীপবাবু ধন্যবাদও জানিয়েছেন। যা নিয়ে শুধু সোশ্যাল মিডিয়া নয়, প্রবল সমালোচনা শুরু হয়েছে রাজ্যজুড়ে। দিলীপ ঘোষের মতো একজন জনপ্রিয় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব কিভাবে কবিতা অগ্রাহ্য করা মানুষদের উৎসাহিত করতে পারেন সেটা ভেবে অবাক হচ্ছেন সকলে। ভোট বড় বালাই, ন্যূনতম দায়িত্ববোধও নেই দিলীপ ঘোষদের?

এখানেই শেষ নয়। আজ, মঙ্গলবার সকালে আসানসোলের ৬৬ নম্বর ওয়ার্ডেও একই ছবি দিলীপ ঘোষের প্রচারে। এখানেও প্রার্থী ও দলবল নিয়ে রাস্তা দিয়ে মালা পড়ে মিছিল করছিলেন বিজেপি সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি। কমিশনের গাইডলাইন অগ্রাহ্য করা দিলীপ ঘোষকে বাধা দেয় স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন। দিলীপ ঘোষের প্রচারের ভিডিও ফুটেজে প্রচুর লোক দেখা গেলেও তিনি বলেন, এঁরা সবাই নাকি তাঁর নিরাপত্তা কর্মী। পুলিশ প্রচারে বাধা দিলে তাঁদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন দিলীপ ঘোষ ও বিজেপি কর্মীরা। এরপর রাস্তায় বসে পড়েন তাঁরা। সত্য সেলুকাস, কী বিচিত্র…!

আরও পড়ুন:পুরভোটের নিরাপত্তা ও সুরক্ষায় ৯ হাজার সশস্ত্র পুলিশ মোতায়েন করবে রাজ্য


Previous articleNew Zealand: ইতিহাস গড় হল না বাংলাদেশের, কিউয়িদের বিরুদ্ধে এক ইনিংস এবং ১১৭ রানে হারল লিটনরা