Train Accident: সরানো হল বিকানের-গুয়াহাটি এক্সপ্রেসের ইঞ্জিন, দুর্ঘটনাস্থল দিয়ে রেল পরিষেবা শুরু

দুর্ঘটনার পর কেটে গেছে ২ দিন। কেন ময়নাগুড়িতে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটল, তা নিয়ে গতকাল প্রায় গোটা দিন ধরেই চুলচেরা বিশ্লেষণ করেছেন রেল আধিকারিকরা। তবে তার মধ্যেই রেল পরিষেবা স্বাভাবিক করতেও উদ্যোগ নিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। ডাউন লাইন ইতিমধ্যেই খালি করা হয়েছে। রেলট্র্যাক পরীক্ষা করার জন্য প্রথমে একটি মালগাড়ি চালিয়ে সেটিকে পর্যবেক্ষণ করা হয়। পরে ওই ডাউন লাইন দিয়ে অতিক্রম করে রাজধানী এক্সপ্রেস। রেলের তরফে এদিন আশ্বাস দেওয়া হয় পুণরায় আগের মত পরিষেবা শুরু করতে উদ্যোগী তারা।

আরও পড়ুন:৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত রাজ্যে বাড়ল করোনা বিধিনিষেধ, বেশকিছু ক্ষেত্রে ছাড় ঘোষণা

বৃহস্পতিবার বিকেলে নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন থেকে ৪২ কিমি দূরত্বে এই আপ লাইনেই দুর্ঘটনার মুখোমুখি হয় বিকানের-গুয়াহাটি এক্সপ্রেস। শুরু হয় উদ্ধারকাজ। এরপর দুর্ঘটনাস্থল থেকে রেল ট্র্যাক পরিষ্কার করে রেল কর্তৃপক্ষ। রাতভর পরিশ্রম চালিয়ে ক্রেন ও গ্যাস কাটারের সাহায্যে বেলাইনে পড়ে থাকা বগিগুলোকে সরিয়ে ফেলা হয়। এমনকি কাটতে হয়েছে বেশ কয়েকটি বগিও। তবে সমস্যা তৈরি হয় আপলাইনে পড়ে থাকা ইঞ্জিনকে নিয়ে। তদন্তের স্বার্থে ইঞ্জিনটি সরানোর জন্য অপেক্ষা করা হচ্ছিল। কমিশনার অফ রেলওয়ের (সেফটি) নির্দেশের অপেক্ষা করা হচ্ছিল।এরপর রেলওয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান বি কে ত্রিবেদী তদন্তের কারণে ময়নাগুড়িতে পৌঁছলে তাঁর নির্দেশে একটি ইঞ্জিনের সাহায্যে বিকানের এক্সপ্রেসের দুর্ঘটনাগ্রস্ত ইঞ্জিনটি সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে, রেলের টেকনিক্যাল এক্সপার্টরা খুলে পড়ে যাওয়া যন্ত্রাংশটি লাগিয়ে, বিকানের এক্সপ্রেসের লোকোমোটিভ ইঞ্জিনটি মেরামত করে ফেলেন। এরপরই শুরু হয় আপ লাইনের ট্রেন চলাচল পরিষেবা।

রেলওয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান বিকে ত্রিবেদী জানান, শনিবারই আপ লাইন দিয়ে ট্রেন চলাচল শুরু হয়ে যাবে। আগেই আপের ট্র্যাকটি পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে। ট্র্যাকে গন্ডগোল যে কিছু নেই।ইঞ্জিনটি সরিয়ে ফেলায় ট্র্যাকে ট্রেন চালুর আর কোনও বাধা নেই। সেইসঙ্গে তিনি জানান, তদন্তের স্বার্থে দুর্ঘটনাগ্রস্থ বিকানের-গুয়াহাটি এক্সপ্রেসের ইঞ্জিনটি ঘটনাস্থল সংলগ্ন স্টেশনে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে পুঙ্খানুপূঙ্খ তদন্ত হবে। পরবর্তীতে ইঞ্জিনের ক্ষতিগ্রস্থ অংশ মেরামত করা হবে।

Previous articleBJP Meeting: বিজেপিতে বিদ্রোহ: নাম না করে অমিতাভর বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন শান্তনু