আদালতের নির্দেশ কার্যকর করছে না সরকার: দায়িত্ব পালনে লক্ষ্ণণরেখা মানার পরামর্শ রামানার

বিচার প্রক্রিয়ায় গতি আনতে পুরনো আইন বাতিলের পরামর্শ দেন রামানা।

তাদের কাজের জন্য বারবার শীর্ষ আদালতের ভর্ৎসনার মুখে পড়তে হয় কেন্দ্রকে। শনিবার, দিল্লির বিজ্ঞান ভবনে দেশে সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও হাইকোর্টের বিচারপতিদের সম্মেলনে ফের এই বিষয় নিয়ে মন্তব্য করেন সুপ্রিম কোর্টের (Supreme Court) প্রধান বিচারপতি এন ভি রামানা (N V Ramana)। তিনি বলেন, ”রাষ্ট্রের ক্ষমতাকে সরকার, সংসদ এবং বিচার ব্যবস্থার সমান তিনটি শাখার মধ্যে বণ্টন করেছে আমাদের সংবিধান। এই তিন শাখায় ক্ষমতার সমবণ্টনই গণতন্ত্রিক কাঠামোকে মজবুত করে। দায়িত্ব পালন করার সময় খেয়াল রাখতে হবে আমরা যেন লক্ষ্মণরেখা অতিক্রম না করি।” আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও অনেক সময় সরকার নিষ্ক্রিয় থাকছে। এটা গণতন্ত্রের জন্য ভাল নয় বলেও মন্তব্য করেন প্রধান বিচারপতি।

জনস্বার্থ মামলার অপব্যবহার নিয়েও সরব হন প্রধান বিচারপতি। ব্যক্তিগত প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে অনেক ক্ষেত্রেই এই ধরনের মামলা (Case) দায়ের করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করে রামানা।

আরও পড়ুন:সরকারি চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, ধৃত বিধায়কের আপ্ত সহায়ক-সহ ৩

আদালতগুলিতে স্থানীয় ভাষা ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি প্রধান বিচারপতিও জোর দেন। একই সঙ্গে বিচার প্রক্রিয়ায় গতি আনতে পুরনো আইন বাতিলের পরামর্শ দেন রামানা। দেশের বিচারব্যবস্থার পরিকাঠামোর উন্নয়ন নিয়ে আয়োজিত ওই সম্মেলনে প্রধান বিচারপতির মন্তব্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।




Previous articleTripura: মহিলাদের অত্যাচার বিজেপির গুণ্ডাবাহিনীর, মুখ্যমন্ত্রীর সামনেই সরব ছাত্রী