বার্লিনে মোদিকে গান শোনাচ্ছে ভারতীয় শিশু, তুড়ি বাজিয়ে তাল দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

শিশুদের সঙ্গে খোশ মেজাজে মিশে পড়তে ভালোইবাসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি(Narendra Modi)। মাঝে মধ্যেই শিশুদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর(Prime Minister) এমন একাধিক ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ সফরে আরও একবার উঠে এলো এমনই এক ছবি। এখানে অবশ্য খুনসুটি নয়, মুগ্ধ হয়ে এক শিশুর গান শুনছেন প্রধানমন্ত্রী, গানের তালে তালে বাজাচ্ছেন তুড়ি। এমনই এক ভিডিও সম্প্রতি ভাইরাল হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

৩ দিনের ইউরোপ সফরে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ২ মে সোমবার সফরের প্রথম দিনে তিনি গিয়েছেন জার্মানির বার্লিনে। এদিন বার্লিনের এক হোটেলে সেখানে বসবাসকারী ভারতীয়দের সঙ্গে সাক্ষাত করেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানেই এক বছর দশেকের শিশু গান শোনায় প্রধানমন্ত্রীকে। দেশাত্মবোধক সেই গান শিশুর মুখে শুনে মুগ্ধ হন প্রধানমন্ত্রী গানের তালে তালে তুড়ি বাজাতে দেখা যায় প্রধানমন্ত্রীকে। গান শেষ হওয়ার পর দরাজ গলায় শিশুটির প্রশংসাও করেন প্রধানমন্ত্রী। ভিডিওতে দেখা যায় ‘ওয়াও ওয়াও’ বলে শিশুটির গাল টিপে দেন নরেন্দ্র মোদি। এই ভিডিও ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। প্রধানমন্ত্রী নিজে ভিডিওটি শেয়ার করেছেন নিজের ফেসবুকে।

উল্লেখ্য, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ পরিস্থিতির মাঝে ২ মে তিনদিনের ইউরোপ সফরে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এদিন জার্মানি থেকে সফর শুরু করেন তিনি। সফর শেষ হবে ফ্রান্সে। এর মধ্যে ২ দিন তিনি থাকবেন জার্মানিতে। বিদেশ সফরের আগেই একটি বিবৃতি জারি করে প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, তিনি একটি কঠিন সময়ই ইউরোপ সফরে যাচ্ছেন। এই সময় এই অঞ্চল একাধিক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে রয়েছে। তবে এই বাস্তবতার মধ্যেই ভারত ইউরোপীয় দেশগুলির সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে চায়। ইউরোপের সেই দেশগুলির সঙ্গে ভারত সম্পর্ক রাখতে আগ্রহী যারা শান্তি, শৃঙ্খলা আর সমৃদ্ধির জন্য লড়াই করতে আগ্রহী। এই সফরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বার্লিনে জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ স্কোলজ, কোপেনহেগেনে ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী মেটে ফেডেরিকসেন ও প্যারিসে ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতি ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর সঙ্গে দেখা করবেন। ৩ দিনের এই সফরে একাধিক বৈঠক করবেন প্রধানন্ত্রী। তিন দেশের রাষ্ট্র প্রধানের সঙ্গেও কথা বলবেন তিনি।




Previous articleহয়রানি এড়াতে নয়া উদ্যোগ, জন্ম-মৃত্যুর শংসাপত্রের জন্য আসছে রাজ্যের নিজস্ব পোর্টাল