প্রয়োজনে ৪-৫ বছর পর বদলাবে ‘অগ্নিপথে’ নিয়োগ প্রক্রিয়া, ইঙ্গিত সেনা উপপ্রধানের

কেন্দ্রের সেনা নিয়োগের(Army Recruitment) নয়া প্রক্রিয়া অগ্নিপথকে(Agnipath) কেন্দ্র করে ক্ষোভের আগুন জ্বলছে গোটা দেশে। এহেন পরিস্থিতির মাঝেই বড় ইঙ্গিত দিলেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর ভাইস চিফ বা উপপ্রধান বিএস রাজু(BS Raju)। এদিন তিনি জানালেন, অগ্নিপথের মাধ্যমে নিয়োগের এই প্রক্রিয়া অনেক ভেবেচিন্তে ঠিক করা হয়েছে। আগামী দিনে যদি প্রয়োজন পড়ে সেক্ষেত্রে ৪-৫ বছর পর এটা বদলানো হতে পারে।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সেনার উপপ্রধান বিএস রাজু বলেন, অগ্নিপথ একটা পাইলট প্রজেক্ট। এই প্রকল্প সেনার নিয়োগ প্রক্রিয়ায় আমূল বদলের সূত্রপাত মাত্র। এই পরিবর্তনটার প্রয়োজন ছিল। তবে তিনি জানিয়েছেন, যদি আগামী কয়েক বছরের মধ্যে মনে হয় অগ্নিবীরদের নিয়োগ প্রক্রিয়ার কোনও পরিবর্তন দরকার, সেটা বয়সের সময়সীমা হোক, বা কত শতাংশকে স্থায়ী কমিশন দেওয়া হবে সেটা হোক। সবেতেই বদল আসতে পারে। তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন, “আমরা এখন যেটা করছি সেটা পাইলট প্রজেক্ট। যদিও ব্যাপক হারে যা হচ্ছে সেটাকে পাইলট প্রজেক্ট বলা ঠিক নয়। তবে কাজ সবে শুরু হয়েছে। আগামী দিনে বদল আসবে।”

এদিকে এই প্রকল্পকে কেন্দ্র করে দেশজুড়ে যেভাবে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে তার পাল্টা সরকারের তরফে স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে সরকার এই প্রকল্পকে কোনও ভাবেপ্রত্যাহার করবে না। এদিক প্রাক্তন সেনাপ্রধান তথা কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ প্রতিমন্ত্রী ভিকে সিং জানান, যদি কারও ইচ্ছা না হয়, তাহলে সে সেনাবাহিনীতে যোগ দেবে না। তার জন্য এইভাবে প্রতিবাদ জানানোর কোনও অর্থ নেই। শুধু তাই নয়, বিক্ষোভকে উপেক্ষা করে ইতিমধ্যেই তিন সেনা বাহিনীতে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে তিন সেনাবাহিনী। জারি হয়েছে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিও।


Previous article আচার্য বিল: ফের রাজ্যের বিরুদ্ধে সরব ধনকড়, বিজেপির উস্কানি !