কালীপুজো নিয়ে লেকচার সিরিজ, ফের বিতর্কে বিশ্বভারতী

সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা থেকে সম্প্রতি অনেকখানি নিচে নেমেছে ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিশ্বভারতী(Viswabharati)। আর সেই বিতর্কের মাঝেই এবার বিশ্ববিদ্যালয়ে কালীপুজো(Kali puja) নিয়ে লেকচার সিরিজের আয়োজন করে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়তে হল এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে। এই ঘটনায় প্রশ্ন তুলেছেন ঠাকুর পরিবারের সদস্য সুপ্রিয় ঠাকুর(Supriyo Thakur)।

প্রতিবছরই লেকচার সিরিজের আয়োজন করে বিশ্বভারতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। নির্দেশিকা জারি করে কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, ২৫ জুলাই হবে লেকচার সিরিজ। বিষয় থাকবে ‘কালীপুজোর ধারণা’। আর এই বিতর্ক সিরিজে উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী, অধ্যাপক, ছাত্র-ছাত্রীদের পাশাপাশি থাকবেন শারদআত্মানন্দ মহারাজ। উল্লেখ্য, মূর্তি পুজোয় বিশ্বাসী নয় বিশ্বভারতী। এখানে পালিত হয় ব্রহ্ম ধর্ম। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে শ্রদ্ধা জানানো হয় তাঁর চেয়ারে পুষ্পার্পণ করে। তাহলে কেন কালী পুজোর ধারণা নিয়ে লেকচার সিরিজের আয়োজন, সেই প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে।

এদিকে সম্প্রতি কালী প্রসঙ্গে মন্তব্য করে রাজনীতিতে বিতর্ক তৈরি করেছিলেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। যা নিয়ে ব্যাপকভাবে সরব হয়েছে বঙ্গ বিজেপি। প্রতিবাদ স্বরূপ জুলাই মাসে কলকাতায় কালীপুজোর আয়োজন করেছে বিজেপি। এই পরিস্থিতির মাঝে কালীপুজো নিয়ে লেকচার সিরিজে রাজনৈতিক গন্ধ পাচ্ছে বিশেষজ্ঞ মহল। পাশাপাশি, এই ইস্যুতে ঠাকুর পরিবারের সদস্য সুপ্রিয় ঠাকুর বলেন, “বিশ্বভারতীতে এই ধরণের আলোচনা প্রথম এবং এটা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক।” গোটা বিষয়টার নেপথ্যে রাজনৈতিক স্বার্থ রয়েছে বলে অভিযোগ তাঁর। বিজেপি সরকারের কাছে ভাল সাজতে উপাচার্য এই ধরনের লেকচার সিরিজের আয়োজন করেছেন। যা বিশ্বভারতীর রীতি বিরুদ্ধ। এই বিষয়টি মেনে নিতে পারছেন না আবাসিকরাও।


Previous articleআজ সোনা রুপোর দাম কত? জেনে নিন এক ঝলকে