প্রয়াত সাংবাদিক ও সঙ্গীতশিল্পী শর্মিষ্ঠা রায়, শোকের ছায়া শিল্পীমহলে

না ফেরার দেশে পাড়ি দিলেন প্রখ্যাত সাংবাদিক এবং সঙ্গীতশিল্পী শর্মিষ্ঠা রায়। বৃহস্পতিবার দুপুরে নিউটাউনের একটি বেসরকারি হাসপাতালে আচমকাই তাঁর হৃদযন্ত্র থেমে যায়। এরপরই চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। তাঁর মৃত্যুতে সঙ্গীতজগতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

আরও পড়ুন: একুশের মঞ্চে মুড়ির বস্তা এখন মহার্ঘ্য! গ্রামের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে যাচ্ছে দিদির প্রসাদ

গত ১২ জুলাই সেরিব্রাল স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় শিল্পীকে। আইসিইউতে রেখে দশদিন ধরে চলে তাঁর চিকিৎসা। কিন্তু তাতেও শেষরক্ষা হয়নি। গতকাল আচমকাই তাঁর হৃদযন্ত্র থেমে যায়। মাল্টি অর্গ্যান ফেলিওর ও সেপসিসের আক্রমণের বিরুদ্ধে ডাক্তারদের সমস্তরকম চেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

শৈশব থেকেই সঙ্গীতের অনুশীলন শুরু করেন শিল্পী শর্মিষ্ঠা রায়। মালবিকা কানন ও এটি কাননের কাছেও তালিম নেন তিনি।তারপর সঙ্গীত রিসার্চ আকাদেমিতে থেকে জ্ঞানপ্রকাশ ঘোষের সান্নিধ্যে আসেন তিনি। অন্যদিকে সুধীন দাশগুপ্তর কাছেও বাংলা গানের তালিম নেন। কৈশোর থেকেই আকাশবাণীর বিভিন্ন গানের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন তিনি।পন্ডিত রবিশংকর, আলি আকবর, সলিল চৌধুরি, হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের মতো শিল্পীর স্নেহছায়া পেয়েছেন তিনি। পন্ডিত অজয় চক্রবর্তী তাঁর সতীর্থ ছিলেন।

গানের পাশাপাশি সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন। দীর্ঘকাল সত্যযুগ পত্রিকায় রিপোর্টিং ও মিউজিক ক্রিটিক ও সম্পাদকীয় বিভাগে কাজ করেন। দিল্লিতে ২৬ বছর থাকাকালীন বাংলাদেশের একটি পত্রিকার হয়ে কাজ করেন। সবশেষে দিল্লিতে আকাশবাণীর বাংলা বিভাগের নিউজ রিডার হয়ে কাজ করেন।









Previous articleএকুশের সমাবেশ বোঝালো কাঁথিতেও মুছে গিয়েছে শান্তিকুঞ্জর অধিকারীদের মিথ