সিবিআই-এর পরে অনুব্রত মণ্ডলকে গ্রেফতার করল ইডি

এর আগে সায়গল হোসেনকে (Saigal Hossain) দিল্লিতে নিয়ে যায় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। দফায় দফায় দিল্লিতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় অনুব্রত কন্যা সুকন্যা মণ্ডলকেও। অনুব্রত অ্যাকাউন্টেন্ট মনীষ কোঠারিকেও দিল্লিতে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে ইডি (ED)।

এবার ইডির (ED) কব্জায় অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal)। আসানসোল জেলা আদালতে বৃহস্পতিবার সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর অনুব্রত মণ্ডলকে (Anubrata Mondal) গ্রেফতার করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ED)। আদালতে ট্রানজিট রিমান্ডের আবেদন জানাবে ইডি (ED), এমনটাই মনে করা হচ্ছে।

গরু পাচার কাণ্ডে (Cow Smuggling) আগেই অনুব্রতকে সিবিআই (CBI) গ্রেফতার করেছিল। এবার ইডি গ্রেফতার করায় অনুব্রতকে দিল্লি নিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা ক্রমশ জোরালো হচ্ছে। সকাল থেকে লাগাতার জেরা করা হয় অনুব্রতকে। চার পাতার প্রশ্নপত্রে অনুব্রত মণ্ডলের বিপুল সম্পত্তি, টাকার লেনদেনের বিষয় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাঁকে। ইডি আধিকারিকদের তিনজনের বিশেষ টিম বৃহস্পতিবার সকালেই আসানসোলের সংশোধনাগারে পৌঁছে যান। অনুব্রত মন্ডলের অ্যাকাউন্টে যে কোটি কোটি টাকা পাওয়া গেছে গরু পাচারের সঙ্গে সেই টাকার যোগ আছে কিনা তা নিয়ে অনুব্রত মণ্ডলকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। ইডি সূত্রে খবর তিনি প্রশ্নের সঠিক জবাব দেননি। তথ্য গোপন করার অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এর আগে সায়গল হোসেনকে (Saigal Hossain) দিল্লিতে নিয়ে যায় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। দফায় দফায় দিল্লিতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় অনুব্রত কন্যা সুকন্যা মণ্ডলকেও। অনুব্রত অ্যাকাউন্টেন্ট মনীষ কোঠারিকেও দিল্লিতে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে ইডি (ED)। এবার অনুব্রতর দিল্লি যাওয়া সময়ের অপেক্ষা বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। শুক্রবার আদালতে এই নিয়ে আবেদন করতে পারে ইডি।

 

Previous articleবাংলাদেশে ফের বাড়ল সোয়াবিন তেল ও চিনির দাম, গুরুবারে কার্যকর নয়া দাম