অনুব্রতের লটারি রহস্যের সন্ধানে বীরভূমে CBI

নূর আলির কাছ থেকেই এক কোটি টাকার লটারির টিকিট অনুব্রত মণ্ডল নগদ টাকায় কিনেছিলেন বলে সিবিআই আধিকারিকরা জানতে পেরেছেন

গরুপাচার মামলায় এখন জেলবন্দি অনুব্রত মণ্ডল। তাঁর
নামে ১ কোটি টাকার লটারির টিকিটের ‘প্রকৃত’ মালিকানার সন্ধানে আজ, বৃহস্পতিবার বীরভূমে পৌঁছছে সিবিআই। এক কোটি টাকার লটারি আসলে কে পেয়েছিলেন? সেই ব্যক্তির খোঁজেই বড় শিমুলিয়া গ্রামে তল্লাশি অভিযান চালানো হয়।

এদিন বড় শিমুলিয়া গ্রামের শেখ নূর আলির বাড়িতে তল্লাশি চালান সিবিআই আধিকারিকরা। এই নূর আলির কাছ থেকেই এক কোটি টাকার লটারির টিকিট অনুব্রত মণ্ডল নগদ টাকায় কিনেছিলেন বলে সিবিআই আধিকারিকরা জানতে পেরেছেন। সিবিআইয়ের ৬ জন আধিকারিকরা শেখ নূর আলিকে জেরাও করেন। তাঁর কাছে থাকা ব্যাঙ্কের বিভিন্ন নথিপত্র দেখতে চাওয়া হয়। আজই তাঁকে শান্তিনিকেতনের রতনকুঠিতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফের তলব করে সিবিআই।

প্রসঙ্গত, গরুপাচার মামলায় লটারির মাধ্যমে কালো টাকা সাদা করার অভিযোগ উঠেছে অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে। এবার সেই রহস্যের শিকড়ে পৌঁছতে চায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। সিবিআই জানতে পেরেছে, অনুব্রত মণ্ডল ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা একাধিক লটারি জিতেছেন। আর এই সমস্ত লটারির মাধ্যমেই নাকি লেনদেন হয়েছে কোটি কোটি টাকার! এর আগে অনুব্রত মণ্ডল এবং তাঁর পরিবারের মোট পাঁচটি লটারি জেতার হদিশ পেয়ে শুরু হয় তদন্ত। অনুব্রত ঘনিষ্ঠদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের দিকেও সিবিআই কড়া নজর রেখেছে বলে জানা গিয়েছে।

 

 

Previous articleনির্বাচনে আগে গুজরাটে সংখ্যালঘু ৩ ছাত্রকে বেদম মার! লাভ জিহাদের অভিযোগ