দার্জিলিং পুরসভা হাতছাড়া হচ্ছে হামরো পার্টির! অনিতের বিরুদ্ধে ক্ষোভ অজয়ের

দুর্বল হয়ে পড়েছে অজয় এডওয়ার্ডের দল। এখন দুই তৃণমূল কাউন্সিলরের সমর্থন নিয়ে পুরসভা ভোট গঠন করতে পারে অনিত থাপার (Anit Thapa) ভারতীয় গোর্খা প্রজাতান্ত্রিক মোর্চার (BGPM)।

সদ্য দল গড়ে দার্জিলিং পুরসভার ভোটে জিতেছিল হামরো পার্টি। কিন্তু এখন ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে পারছে না তারা। সম্প্রতি হামরো পার্টি (Hamro Party) ছেড়ে প্রমোস্কার ব্লোন ও ভূপেন্দ্র ছেত্রী ভারতীয় গোর্খা প্রজাতান্ত্রিক মোর্চায় যোগ দেন। ফলে দুর্বল হয়ে পড়েছে অজয় এডওয়ার্ডের দল। এখন দুই তৃণমূল কাউন্সিলরের সমর্থন নিয়ে পুরসভা ভোট গঠন করতে পারে অনিত থাপার (Anit Thapa) ভারতীয় গোর্খা প্রজাতান্ত্রিক মোর্চার (BGPM)।

দার্জিলিং পুরসভার ৩২টি আসনের মধ্যে ১৮টি আসন পায় হামরো পার্টি, ৯টি আসন পায় অনিত থাপার BGPM, তিনটি আসন পায় বিমল গুরুংয়ের গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা (GJM)। তৃণমূল পায় দুটি আসন। কিন্তু ৬ কাউন্সিলর ইতিমধ্যে দল ছড়ায় ১২ টি আসন রয়েছে হামরো পার্টির। এই পরিস্থিতিতে তৃণমূলের দুই কাউন্সিলর অনিত থাপার দলকে সমর্থন জানাবেন বলে ঘোষণা করেছেন। এই পরিস্থিতিতে বোর্ড গঠন করতে পারে BGPM।

অজয় এডওয়ার্ডের (Ajoy Edwards) অভিযোগ, তাঁর দলের কাউন্সিলর কিনে পুরসভা দখলের চেষ্টা চলছে। হামরো পার্টির নেতা সরাসরি কাঠগড়ায় তুলেছেন গোর্খাল্যান্ড টেরিটোরিয়্যাল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন বা জিটিএ (GTA)-এর মুখ্য কার্যনির্বাহী আধিকারিক অনিত থাপাকে। অজয় এডওয়ার্ডের অভিযোগ, তাঁর দলের কাউন্সিলরদের লক্ষাধিক টাকা-সহ শিলিগুড়িতে একটি করে ফ্ল্যাট দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন অনিত। পরিবর্তে তাঁর তরে যোগ দিতে বলেছেন BGPM প্রধান।

তবে অজয়ের অভিযোগ উড়িয়ে বিজিপিএম দলের মুখপাত্র শক্তিপ্রসাদ শর্মা বলেন, “আমরা কোনও দল ভাঙতে যাব কেন? হতাশা থেকে অজয় এসব বলছেন। ওর নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষমতাই নেই বলে দলে কেউ থাকতে চাইছেন না।”

 

 

 

Previous articleআজ বিশ্বকাপের অভিযান শুরু করতে চলেছে পাঁচবারের চ‍্যাম্পিয়ন ব্রাজিল