বেঙ্গল কেমিক্যাল বিলগ্নিকরণের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে নাগরিক সভা

আচার্য প্রফুল্লচন্দ্র রায়ের 158তম জন্মবার্ষিকীর দিনেই, শুক্রবার তাঁর স্বপ্নের প্রতিষ্ঠান ‘বেঙ্গল কেমিক্যাল’ বাঁচাতে বিশিষ্ট মানুষ ও কর্মীদের বিক্ষোভ সভা কারখানার গেটে। মানিকতলা মেন রোডের বেঙ্গল কেমিক্যাল কারখানা ও অফিসের গেটে এই বিক্ষোভ সভার আয়োজন করে একাধিক সংস্থা। আচার্য প্রফুল্লচন্দ্রের মূর্তিতে মাল্যদান করে সভা শুরু হয়। তার আগে কাঁকুরগাছি মোড় পর্যন্ত মিছিল হয়। বেঙ্গল কেমিক্যালের কর্মীরাও অংশ নেন। সভা থেকেই “বেঙ্গল কেমিক্যাল ও সরকারি সংস্থা বাঁচাও ” কমিটি তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়। এই প্রতিবাদ সভায় ফ্রেন্ডস অফ ডেমোক্র্যাসি, ফামা , এপিডিআর (নর্থ ), শ্রমজীবী স্বাস্থ্য উদ্যোগ , ফ্যাসিবাদ বিরোধী গান মঞ্চ , বিজ্ঞান ও বিজ্ঞান কর্মী, বাংলা পক্ষ, ফোরাম ফর সিভিল লিবার্টি , একসাথে, ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স ফর পিপলস মুভমেন্ট , স্বরাজ অভিযান, AWBRSU-সহ একাধিক সংগঠন অংশ নেয়। এছাড়াও ছিলেন শিল্পী
প্রতুল মুখোপাধ্যায়, কল্যাণ রুদ্র, অশোকেন্দু সেনগুপ্ত, মানস দত্ত, বিশ্বনাথ চক্রবর্তী ও বেঙ্গল কেমিক্যালসের কর্মীদের পক্ষে অসীম দাস উপস্থিত ছিলেন। বিক্ষোভ সভার মূল আয়োজক ফ্রেন্ডস অফ ডেমোক্র্যাসি। বক্তারা বলেন, লোকসান কাটিয়ে গত কয়েক বছর টানা লাভের মুখ যখন দেখছে শতাব্দী প্রাচীন বেঙ্গল কেমিক্যাল, তখনই এই সংস্থা বিলগ্নিকরণ করতে চাইছে কেন্দ্রীয় সরকার।
এই ভাবনার অযৌক্তিক। বাঙালি যে ব্যবসা করতে পারে তার উদাহরণ হিসেবে গড়ে ওঠা বেঙ্গল কেমিক্যালের ক্ষেত্রে এই সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়া সম্ভব নয়। সম্প্রতি এই সংস্থায় থাকা সরকারি শেয়ার বিক্রির কথা জানিয়েছে কেন্দ্র। কর্মীদের দাবি, কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কাঁধ মিলিয়ে তাঁরা কঠিন সময় পার করেছেন। এখন সংস্থার সামনে উজ্জ্বল ভবিষ্যতের হাতছানি। মিনিরত্ন হওয়ার সম্ভাবনা। তাঁদের প্রশ্ন, সংস্থা ঘুরে দাঁড়াতে সক্ষম প্রমাণ হওয়ার পরেও বিলগ্নিকরণের অর্থ কী? কর্মীদের বক্তব্য, “আমাদের বেতন সংস্থার আয় থেকে হয়। সংস্থা চালাতে কেন্দ্রকে নতুন করে ঋণ দিতে হয়নি। পুরনো ঋণও মেটাচ্ছেন কর্তৃপক্ষ।’’ সংস্থার জমি ও পরিকাঠামো রয়েছে। ব্যবসা সম্প্রসারণে তা কাজে লাগানো যায়। অস্থায়ী কর্মী ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে বক্তারা বলেন, ছাঁটাই নয়, বরং লাভের পথে থাকতে হলে আরও কর্মী প্রয়োজন। সভার উদ্যোক্তারা ঘোষনা করেছেন, “আন্দোলন শুরু হলো। আগামী দিনে বৃহত্তর আন্দোলন হবে”।