রবীন্দ্র সরোবরের গেট ভেঙে ছটপুজোর প্রস্তুতি

আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে অবাধে রবীন্দ্র সরোবর চলছে ছটপুজোর প্রস্তুতি। শনিবার, সকাল ৭টা নাগাদ সরোবরের তিন নম্বর গেটের তালা ভেঙে ঢোকেন কয়েকশো মানুষ। এরপরে মাদার ডেয়ারি সংলগ্ন গেটও ভেঙে দেন বিক্ষোভকারীরা। ছটপুজো নিয়ে কেএমডিএ-এর নিষেধাজ্ঞার নোটিশ ছিড়ে ফেলেন তাঁরা।

বিক্ষোভ বাড়ালেও রবীন্দ্র সরোবর থানার পুলিস সেখানে পৌঁছয়নি বলে অভিযোগ। সরোবরের নিরাপত্তারক্ষীরা জানান, মাত্র কয়েকজন মিলে বিপুল জনতাকে আটকানো সম্ভব হয়নি। কোনও পুলিশ যায়নি বলেও অভিযোগ করেন তাঁরা।
ছটপুজো ও পরিবেশ দূষণ বিতর্ক জেরে বেশ কয়েকবছর ধরেই সরোবরে পুজো নিয়ে চাপানউতোর শুরু হয়। কোনও মতেই রবীন্দ্র সরোবরে ছটপুজো করতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়ে দেয় জাতীয় পরিবেশ আদালত। কিন্তু গত দু বছর সেখানে অবাধে পুজো হয়। এবছর আদালতের নির্দেশ মেনে সেখানে ছটপুজো বন্ধের নির্দেশ জারি করেছে কেএমডিএ-ও। বিকল্প হিসাবে শহরের ১০টি পুকুরে ছটপুজোর অনুমতি দেওয়া হয়।

কিন্তু পূণ্যার্থীদের দাবি, প্রতি বছরের মতো রবীন্দ্র সরোবরেই এবারও ছটপুজো করতে দিতে হবে। এর পরেই সরোবরের একের পর এক গেট ভেঙে ভিতরে ঢুকে পুজোর প্রস্তুতি শুরু করেন বিক্ষোভকারী। এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রাতঃভ্রমণকারী থেকে পরিবেশবিদরা।

আরও পড়ুন-জগদ্ধাত্রী পুজো উপলক্ষে বিশেষ ট্রেন পূর্ব রেলের