আমরা রাজনীতি থেকে দূরেই থাকি, নতুন বছরে বার্তা সিডিএস রাওয়াতের

সেনাবাহিনী সবসময় রাজনীতি থেকে দূরে থাকে এবং নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করে। 2020-র প্রথম দিন দায়িত্ব নিয়েই এই বার্তা দিলেন ভারতের প্রথম চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত। দেশজুড়ে নাগরিকত্ব ইস্যুতে প্রতিবাদের নামে বেলাগাম হিংসা ও তাণ্ডবের নিন্দা করেছিলেন তিনি। বলেছিলেন, নেতৃত্ব তাকেই বলে যা সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা দেয়। হিংসায় প্ররোচনা দেওয়া প্রকৃত নেতার কাজ নয়। সেনাপ্রধান হিসাবে অবসর নেওয়ার কদিন আগে রাওয়াতের এই মন্তব্য বিতর্ক তৈরি করে। একাধিক বিরোধী দল, বিশেষত কংগ্রেস রাওয়াতের ‘নিরপক্ষতা’ নিয়ে প্রশ্ন তোলে। বলা হয়, রাজনীতির বিষয়ে মন্তব্য করে এক্তিয়ার পেরিয়েছেন সেনাপ্রধান।

বর্ষশেষে সেনাপ্রধানের পদ থেকে অবসর নিয়ে সিডিএসের নতুন ইনিংস শুরু করেছেন রাওয়াত। অথচ তাঁর সম্পর্কে বিতর্ক এখনও অব্যাহত। তাই বছরের প্রথম দিনেই তাঁর বার্তা: আমরা রাজনীতি থেকে দূরে থাকি। আমরা রাজনীতি থেকে নিজেদের দূরে রাখি। সরকারের নির্দেশাবলী অনুযায়ী কাজ করি মাত্র। সেনার সঙ্গে রাজনীতির ওঠাপড়ার যে কোনও সম্পর্ক নেই তা বোঝাতেই সম্ভবত এই মন্তব্য করে বিতর্কে জল ঢালতে চেয়েছেন রাওয়াত। আর এই বিষয়ে প্রাক্তন মন্ত্রী ও কংগ্রেস সাংসদ পি চিদম্বরমের প্রতিক্রিয়া: যুদ্ধ কীভাবে করা উচিত তা নিয়ে আমরা যেমন কথা বলতে পারি না তেমনই রাজনীতিকদের কী করা উচিত তা নিয়ে কারুর পরামর্শ নিষ্প্রয়োজন।