মাদুরাইতে জাল্লিকাট্টু উৎসবে আহত ৩২,আশঙ্কাজনক ৪

মকর সংক্রান্তি উপলক্ষ্যে মাদুরাইতে জাল্লিকাট্টু বা ষাঁড়ের লড়াই চলাকালীন অন্তত ৩২ জন আহত হলেন। এদের মধ্যে ৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।তড়িঘড়ি আহতদের মাদুরাই সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
প্রতি বছরই এই উৎসব চলাকালীন ষাঁড়ের গুঁতোয় আহত হন অনেক মানুষ। তা সত্ত্বেও অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ এই উৎসবে মেতে উঠে তামিলনাড়ুর মানুষ। মকর সংক্রান্তি উপলক্ষ্যে সারা দেশ যখন উৎসবে মেতেছে, সেইসময় তামিলনাড়ুর মানুষ অত্যন্ত প্রাচীন উৎসব জাল্লিকাট্টু বা ষাঁড়ের লড়াইয়ে প্রতিযোগিতায় সামিল হন। প্রায় ২ হাজার ষাঁড় এই অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছে। মকর সংক্রান্তির দিন শুরু হওয়া এই উৎসব চলবে ৩১ জানুযারি পর্যন্ত।
অভনিয়াপুরমে ৭৩০টি, অলঙ্গনল্লুরে ৭০০টি, পলমেদুতে ৬৫০টি ষাঁড় রয়েছে এবারের জাল্লিকাট্টুতে। প্রতিযোগিতার আয়োজনের উপর নজর রাখতে মাদ্রাজ হাইকোর্টের মাদুরাই বেঞ্চ দায়িত্ব দিয়েছে প্রাক্তন বিচারপতি সি মানিকমকে। এবার এক-একটি দলে ৭৫ জনকে রাখা হয়েছে। ৬০টি করে ষাঁড় ছাড়া হবে।যে কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এই প্রতিযোগিতায় আঘাত পাওয়ার ঘটনা ঘটে অহরহই। তাই ব্যবস্থা রাখা হয়েছে শতাধিক অ্যাম্বুলেন্সেরও।
নিশ্চয়ই জানতে করছে এই জাল্লিকাট্টুর পদ্ধি। একটি ষাঁড়কে ভিড়ের মাঝে ছেড়ে দেওয়া হয়। ভিড়ের মধ্যে থেকে কেউ ষাঁড়ের পিঠে উঠে তাকে থামানোর চেষ্টা করেন। ষাঁড়ের সিং–এ লাগানো থাকে পতাকা, সেটি খোলার মাধ্যমেই শেষ হয় জাল্লিকাট্টু।