রোগী দেখার জন্য বেরোতেই জলপাইগুড়ির সাংসদকে বাধা পুলিশের

রোগী দেখতে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন বিজেপি সাংসদ চিকিৎসক জয়ন্ত কুমার রায়। অভিযোগ, বাড়ি থেকে বেরোতেই বাধা দেয় পুলিশ। শুক্রবার সকালে এই ঘটনায় উত্তেজনা সৃষ্টি হয় জলপাইগুড়ি শহরের পাহাড়ি পাড়া এলাকায়।

শহরের পাহাড়ি পাড়ায় সাংসদের বাড়ি। সাংসদ জানিয়েছেন, এদিন সকালে বাড়ি থেকে বেরোতেই পুলিশ বাধা দেয়। তারপর সেখানেই অবস্থানে বসেন তিনি। তবে এটাই প্রথম নয়। এর আগেও সাংসদকে বাধা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ।
১৬ এপ্রিল জলপাইগুড়ির সাংসদ স্কুটিতে চেপে ডাবগ্রাম ফুলবাড়ি থেকে জলপাইগুড়িতে নিজের বাড়ি যাচ্ছিলেন। তখন রাজগঞ্জ থানা এলাকার জটিয়াখালিতে সাংসদকে আটকে দেয় পুলিশ। শিলিগুড়িতে নিজের ফ্ল্যাটে ফিরে যেতে বাধ্য হন তিনি। পরের দিন পুলিশের চোখ এড়িয়ে জলপাইগুড়ি ফেরেন তিনি। তারপর কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন ওই সাংসদ।
সাংসদের বক্তব্য, ৩ মে তাঁর কোয়ারেন্টাইনের মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে। অথচ রোগী দেখতে বেরোলে তাঁকে আটকে দেওয়া হয়। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “সাংসদ হওয়ার বাইরে আমার একটা পরিচয় আছে। আমি একজন চিকিৎসক। জরুরি পরিষেবা দিতে আমাকে বেরোতেই হবে। আমি লিখিত ভাবে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল কাউন্সিলকে জানাব।”