৩০০ কর্মীবিশিষ্ট সংস্থায় অনুমতি ছাড়াই ছাঁটাই, সংসদে পাশ শ্রম বিল

কোনও সংস্থায় সর্বোচ্চ ৩০০ জন শ্রমিক থাকলে সরকারের অনুমতি ছাড়াই সংশ্লিষ্ট সংস্থা কর্মী ছাঁটাই করতে পারবে৷ কোম্পানি গুটিয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রেও কোনও বাধা থাকবে না৷ বুধবার রাজ্যসভায় শ্রম আইন সংস্কারের লক্ষ্যে এই বিল পাশ হল। গতকাল লোকসভাতেও তা পাশ করিয়েছিল সরকার। ফলে এবারের বাদল অধিবেশনে শ্রম আইন সংস্কারের লক্ষ্যে আনা তিনটি গুরুত্বপূর্ণ শ্রম বিলই সংসদের ছাড়পত্র পেল।

আরও পড়ুন- দলবদলুদের নিয়ে দিলীপের দু’বার দু’রকম কথা

রাজ্যসভার ৮ সাংসদকে সাসপেন্ড করার প্রতিবাদে রাজ্যসভা অধিবেশন যথারীতি এদিনও বয়কট করে কংগ্রেস ও বামেরা৷ ফলে এদিন ধ্বনি ভোটে অনায়াসেই রাজ্যসভায় পাশ হয়ে যায় শিল্পে শ্রমিক-মালিক সম্পর্ক বিধি, সামাজিক সুরক্ষা বিধি এবং কর্মক্ষেত্রে স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা নিশ্চয়তা বিধি৷ শ্রম আইনে গুরুত্বপূর্ণ সংস্কারের লক্ষ্যে ৪৪টি কেন্দ্রীয় শ্রম আইনের মধ্যে ১৫টিকে বর্তমান সময়ে অপ্রাসঙ্গিক বলে বাতিল করেছে কেন্দ্র। বাকি ২৯টিকে চারটি শ্রম বিধির অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে লোকসভা ও রাজ্যসভায় শ্রমিকদের মজুরিবিধি পাশ হয়েছে গত বছরেই। মঙ্গলবার লোকসভায় আলোচনা নির্দিষ্ট ছিল বাকি তিনটি অর্থাৎ শিল্পে শ্রমিক-মালিক সম্পর্ক বিধি, সামাজিক সুরক্ষা বিধি এবং কর্মক্ষেত্রে স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা নিশ্চয়তা বিধির বিষয়ে। গতকাল কার্যত বিরোধীশূন্য লোকসভায় বিনা বাধায় পাশ হয়ে যায় ৩টি শ্রম সংস্কার বিল৷ আজ বুধবার বিরোধীশূন্য রাজ্যসভাতেও তা অনায়াসে পাশ করিয়ে নিল সরকার৷

তিনটি শ্রম সংস্কার বিল সম্পর্কে কেন্দ্রীয় শ্রম মন্ত্রী সন্তোষ গাঙ্গোয়ার বলেন, সময়ের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে ব্যবসার ক্ষেত্রে শ্রম আইনে এই সংস্কার জরুরি ছিল। এই সংস্কারের ফলে ব্যবসা ও কাজের পরিবেশ আরও উন্নত হবে। তিনি জানান, ৩০০ জন পর্যন্ত কর্মী বিশিষ্ট সংস্থায় সরকারের অনুমতি ছাড়া ছাঁটাইয়ের আইন ইতিমধ্যেই দেশের ১৬টি রাজ্যে চালু হয়ে গিয়েছে৷