দেশ জুড়ে ৩১ কৃষক সংগঠনের ভারত বনধ

কৃষক-বিরোধী কৃষি বিলের প্রতিবাদে দেশ জুড়ে ৩১টি কৃষক সংগঠন আজ, শুক্রবার ভারত বনধের ডাক দিয়েছে। তবে বনধের নেতৃত্বে মূলত পাঞ্জাব ও হরিয়ানা। পাঞ্জাব মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং সাফ জানান, সরকার কৃষকদের পাশে। ১৪৪ ধারা ভাঙার জন্য কোনও কৃষকের বিরুদ্ধে এফআইআর করা যাবে না। কিন্তু কৃষকরা যেন কোনও সরকারি সম্পত্তি নষ্ট না করেন। ইতিমধ্যে পাঞ্জাবে তিনদিনব্যাপী রেল রোকো শুরু করেছে। অক্টোবর থেকে অনির্দিষ্টকালীন রেল রোকো শুরু হবে।

অন্যদিকে হরিয়ানার ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়ানের সভাপতি গুরনাম সিং জানান, বেশ কয়েকটি কৃষক সংগঠন পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। দিল্লি পুলিশ হরিয়ানার বর্ডার সিল করে দিয়েছে। সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়েছে কৃষকদের নেতৃত্বে “চাক্কা জ্যাম” কর্মসূচি।

কংগ্রেস কৃষকদের ভারত বনধের সমর্থন করেছে। রাহুল গান্ধী ট্যুইটে বলছেন কৃষকদের অস্তিত্ব বিপন্ন। তারা সরকারকে এবাদ বিপন্ন করবে। বনধের ডাক দিলেও মূলত এই তিন রাজ্যে ধরণা বিক্ষোভেই সীমাবদ্ধ রয়েছে। কংগ্রেস নেতা রনদীপ সুরজওয়ালা বলেন, কৃষকরা দেশের মানুষের পেট ভরান। আর মোদী সরকার তাদেরই আক্রমণ করছে।

উত্তরপ্রদেশে সমাজবাদী পার্টি উত্তরপ্রদেশের জেলায় জেলায় বিল বিরোধিতায় নেমেছে। রাজ্যপালকে স্মারকলিপি দিয়েছে।

আরও পড়ুন-কৃষকদের উন্নয়নে বিল: মোদি