নৃশংস! ধর্মনিরপেক্ষতার পাঠ দেওয়ার ‘অপরাধে’ প্যারিসের রাস্তায় মুণ্ডুচ্ছেদ শিক্ষকের

ক্লাসে ধর্মনিরপেক্ষতার পাঠ দিচ্ছিলেন শিক্ষক। আর ওই ক্লাসেই ইসলাম ধর্মগুরু হজরত মহম্মদের কার্টুন চিত্র দেখিয়েছিলেন ছাত্রদের সামনে। এই ‘অপরাধে’ প্রকাশ্যে মুণ্ডুচ্ছেদ করা হলো শিক্ষকের। ঘটনাস্থল ফ্রান্সের রাজধানী শহর প্যারিস। এই নৃশংস ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁ।

শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে। হত্যাকারীর নাম এখনও জানা যায়নি। ঘটনাস্থলেই নিরাপত্তারক্ষীর গুলিতে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। পুলিশ সূত্রে খবর, আল্লাহু আকবর রব তুলে এই নৃশংস অপরাধ ঘটিয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন নাবালক। ঘাতকের একটি পরিচয়পত্র পাওয়া গেছে। তা দেখে পুলিশের অনুমান,  ২০০২ সালে মস্কোয় জন্ম তার। ফরাসি জঙ্গিদমন শাখা এই ঘটনাকে জঙ্গিহানার সঙ্গে তুলনা করেছে।

মৃত ওই ব্যক্তি ইতিহাসের শিক্ষক। প্যারিস থেকে তিরিশ কিলোমিটার দূরে কনফ্লাস সেইন্ট হোনোরাইন। সেখানেই একটি স্কুলে পড়াতেন তিনি। স্থানীয় এক সংবাদ মাধ্যমে এক ছাত্রের বাবা জানান, ওই শিক্ষক খুবই জনপ্রিয় ছিলেন।  ক্লাসে মহম্মদের কার্টুন চিত্র দেখানোর আগে তিনি মুসলিম ছাত্রদের বাইরে যেতে বলেছিলেন। যাতে তাদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত না লাগে।

যদিও এই ঘটনা ফ্রান্সে প্রথম নয়। শার্লি এবদোর ঘটনায় ২০১৫ সালে তোলপাড় হয় ফ্রান্স। সেই সময় হজরত মহম্মদের একটি ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের জন্য প্যারিসেরর ইহুদি সুপারমার্কেট অঞ্চলে শার্লি এবদোর অফিসে আক্রমণ করা হয়। শুক্রবারের ঘটনার পর জরুরি বৈঠক ডেকেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাক্রোঁ। ঘটনাস্থলেও গিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট। সংবাদ মাধ্যমকে একটি বিবৃতি দিয়ে তিনি জানিয়েছেন, এই ঘটনায় গোটা দেশ শিক্ষকদের পাশে দাঁড়াবে। সংশ্লিষ্ট বিষয় এবং তদন্তের উপর নজর রাখা হচ্ছে বলে জানান ফরাসি অভ্যন্তরীণ বিষয়ক মন্ত্রী।

আরও পড়ুন:পাকিস্তানে ইমরান সরকারকে উৎখাত করার ডাক দিল সে দেশেরই জনগণ!