ঘুষ লেনদেনে এশিয়ায় প্রথম ভারত! আন্তর্জাতিক সমীক্ষায় লজ্জার চিত্র

ঘুষখোর দেশ হিসাবে প্রথম স্থান! ঘুষ লেনদেনের নিরিখে এশিয়ার মধ্যে শীর্ষে ভারত। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কম্বোডিয়া। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল নামে এক সংস্থার সমীক্ষায় উঠে এসেছে এমনই লজ্জার চিত্র। সমীক্ষার ফলাফলে ভারতের চেয়ে অনেক পিছিয়ে পাকিস্তান, বাংলাদেশের মত দেশও।

আরও পড়ুন : ২০২১-এর জুনে মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিকের সম্ভাবনা, প্রস্তাব গেল স্কুল শিক্ষা দফতরে

চলতি বছরের জুলাই থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে এশিয়ার ১৭টি দেশের ২০ হাজার মানুষকে নিয়ে এক সমীক্ষা চালানো হয়। তাতেই উঠে এসেছে এই ফলাফল। সমীক্ষার রিপোর্টে বলা হয়েছে, এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঘুষ লেনদেন হয় ভারতে। ভারতের ৩৯ শতাংশ মানুষই স্বীকার করেছেন, সরকারি সুযোগ-সুবিধা পেতে তাদের ঘুষ দিতে হয়েছে। এশিয়ার মধ্যে সর্বোচ্চ ঘুষ প্রদানের হার এদেশেই।

রিপোর্টে প্রকাশ, ঘুষ দেওয়ার হার নেপালে ১২ শতাংশ, পাকিস্তানে ১৮ শতাংশ, বাংলাদেশে ২৪ শতাংশ, চিনে ২৮ শতাংশ। জাপানের চিত্রটি অত্যন্ত উজ্জ্বল। সেখানে এই হার মাত্র ২ শতাংশ।সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, ভারতের ৪৭ শতাংশ মানুষ বিশ্বাস করেন যে গত ১২ মাসে দেশে দুর্নীতি বেড়েছে। পাশাপাশি, ৬৩ শতাংশ মানুষ এটাও মনে করেন যে দুর্নীতি রুখতে সরকার ভাল কাজ করছে। অর্থাৎ মোদি সরকার দুর্নীতি দূর করতে পারবে এমন আস্থা রয়েছে অনেক মানুষের। সমীক্ষায় আরও দেখা গিয়েছে, ভারতের ৪৬ শতাংশ মানুষ কোনও সরকারি পরিষেবা পাওয়ার জন্য উপর মহলে যোগাযোগ করেন। এদের মধ্যে ৩২ শতাংশই মনে করেন উপর মহলে যোগাযোগ না থাকলে পরিষেবা পাওয়া যায় না।

আরও পড়ুন : কয়লাকাণ্ডে সিবিআই তল্লাশি-জেরা চলাকালীন মৃত্যু ইসিএল নিরাপত্তা আধিকারিকের

এর পাশাপাশি পরিষেবার বিনিময়ে সরকারি কর্মকর্তাদের যৌন শোষণের বিষয়টি এই প্রথমবার সমীক্ষায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। এক্ষেত্রে ভারতে এই হার ১১ শতাংশ, ইন্দোনেশিয়ায় ১৮ শতাংশ, শ্রীলঙ্কায় ১৭ শতাংশ ও থাইল্যান্ডে ১৫ শতাংশ।