কেন্দ্রীয় বাজেটকে সামনে রেখেই হোক রাজ্য বাজেট: নীতি আয়োগের বৈঠকে মোদি

‘উন্নয়নের লক্ষ্য ছোঁয়ার জন্য কেন্দ্র এবং রাজ্যগুলির সমন্বয় অতি গুরুত্বপূর্ণ।’ এই দাবিতে সরব হয়ে শনিবার নীতি আয়োগের বৈঠকে দেশের সমস্ত রাজ্যগুলির কাছে নরেন্দ্র মোদী(Narendra Modi) আবেদন রাখলেন, কেন্দ্রীয় বাজেটকে(Central budget) সামনে রেখেই তৈরি করা হোক রাজ্য বাজেট। প্রধানমন্ত্রীর(Prime Minister) এহেন আবেদনের পর গোটা দেশে শুরু হয়ে গিয়েছে বিতর্ক। মোদির এহেন ইচ্ছা দেশের যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর মৌলিক ভাবনার গোড়ায় আঘাত বলে জানিয়েছে তৃণমূল।

এদিন নীতি আয়োগের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী জানান, ‘করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্র-রাজ্য হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করেছে। যৌথভাবে কাজ করায় সাফল্য এসেছে। দেশের উন্নয়নে কেন্দ্র-রাজ্য একসঙ্গে কাজ করা উচিত।’ এক্ষেত্রে কয়েকটি রাজ্য ভাল কাজ করছে বলেও জানান তিনি। পাশাপাশি রাজ্যগুলিকে বার্তা দিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘কর্পোরেট কর কমার সুবিধে নিক রাজ্য। কেন্দ্রীয় বাজেটকে সামনে রেখে বাজেট তৈরি করুক রাজ্য। এবং সেই বাজেটের সঙ্গে সামঞ্জস্য রাখা হোক রাজ্যের বাজেটে।’ প্রধানমন্ত্রী দাবি করেন, ‘দেশের উন্নয়নই প্রাথমিক লক্ষ্য কেন্দ্রীয় সরকারের। রাজ্যগুলির সার্বিক উন্নতিতে গুরুত্ব দিয়েই পরিকল্পনা করা হচ্ছে। গরিবদের জীবনযাত্রায় উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন এসেছে। উন্নয়নে বেসরকারি ক্ষেত্রের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে।’

তবে মোদি সরকারের এহেন আবেদনের তীব্র বিরোধিতা করা হয়েছে তৃণমূলের তরফে। রাজু তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, ‘কেন্দ্রের মোদি সরকার বাজেট তৈরি করে শিল্পপতি ও তার বন্ধু মহলকে খুশি করে। রাজ্য সরকারতো তেমনটা করতে পারবে না। রাজ্যের মানুষের উন্নয়নই রাজ্য সরকারের লক্ষ্য।’ উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, রাজ্য সরকারের বাজেট কন্যাশ্রীর জন্য প্রচুর টাকা বরাদ্দ থাকবে। কেন্দ্রীয় সরকার তো সেটা করবে না বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও প্রকল্পের যেটুকু বরাদ্দ হবে তার বেশিরভাগ টাকা প্রচারে খরচ হবে। সুতরাং দুই বাজেট একরকম হওয়াটা কখনোই কাম্য নয়। কেন্দ্রীয় সরকারের এহেন পরিকল্পনা দেশের যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর মৌলিক ভাবনার গোড়ায় আঘাত বলেও জানান তিনি।

Advt