মন্ত্রী হয়েই বার্লা বললেন ‘বাংলায় আতঙ্ক- সন্ত্রাস চলছে’, উত্তরে সৌগত’র মন্তব্য, ‘উনি মূর্খ’

যে কারণে মন্ত্রী করা হয়েছে, সেই কাজ শুরু করে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জন বার্লা৷ বুধবার বাংলার চার বিজেপি সাংসদকে কেন্দ্রের প্রতিমন্ত্রী করার পর রাজনৈতিক মহল আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছে, “মন্ত্রিত্ব চালানোর জন্য নয়, চারজনকে মন্ত্রী করা হয়েছে, বাংলার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তোলার জন্য, বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতায় নির্বাচিত রাজ্য সরকারকে চাপে রাখার চেষ্টা চালানোর জন্য”৷

বৃহস্পতিবার মন্ত্রী হিসাবে তাঁর দায়িত্ব বুঝে নিয়েই পৃথক উত্তরবঙ্গের দাবিদার বিজেপির এই সাংসদ তথা মন্ত্রী বলেছেন, “পশ্চিমবঙ্গে এই মুহূর্তে যে সন্ত্রাস এবং আতঙ্ক চলছে, তাতে সকলের মনেই অশান্তি রয়েছে৷ এই আতঙ্ক বন্ধ হয়ে শান্তি ফিরে আসুক, এই কামনা করি।”
পাশাপাশি বিজেপির বলা রুটিন কিছু ‘অভিযোগ’ও তুলেছেন বার্লা৷ বলেছেন, “কেন্দ্রের অনেক প্রকল্পের সুবিধা রাজ্যবাসী পাচ্ছে না, এই নিয়ে প্রয়োজনে আমরা মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথাও বলব। উত্তরবঙ্গের মানুষের দাবি তো আজ থেকে নয়। চা-বাগানের মানুষ এবং আদিবাসীরা আমাদের আশীর্বাদ করেছেন বলেই আজ এই জায়গায় আসতে পেরেছি। কেন্দ্র ও রাজ্য একসঙ্গে জনগণের জন্য কাজ করতে পারলে মানুষের ভালো হবে।”

রাজ্যজুড়ে আতঙ্ক ও সন্ত্রাসের পরিবেশ প্রসঙ্গে বার্লার মন্তব্যের জবাব দিতে দেরি করেননি তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়৷ তিনি স্পষ্টভাষায় বলেছেন, “জন বার্লা মূর্খ। এঁদের মন্ত্রী বানিয়ে অন্যান্য মন্ত্রীদের মান নামিয়ে দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। আমি তো পার্লামেন্টে দেখলাম, একদিনও গোটা একটা ভাষণ দিতে পারেননি। তাই উনি কী বলেন তার কোনও গুরুত্বই নেই”।

আরও পড়ুন:দ্বিতীয় হুগলি সেতু থেকে ঝাঁপ তরুণীর, জীবিত উদ্ধার করলো জলপুলিশ