দাম বাড়াবে কেন্দ্র, দায় চাপাবে রাজ্যের ঘাড়ে: পেট্রোপণ্য ইস্যুতে মোদিকে তুলোধনা মমতার

“নভেম্বর মাসে কেন্দ্র যখন পেট্রোল ডিজেলে এক্সাইজ ডিউটি কমিয়েছিল সেসময় যেসব রাজ্য ভ্যাট কমায়নি, তাঁরা নিজেদের নাগরিকদের সঙ্গে অন্যায় করেছে।” সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে বুধবার এমনই মন্তব্য করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি(Narendra Modi)। এরপরই মোদিকে পাল্টা তোপ দাগলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee)। কড়া সুরে তিনি জানালেন, “দাম বাড়াবে কেন্দ্র। আর মূল্যবৃদ্ধির দায় রাজ্যের ঘাড়ে চাপিয়ে বলবে তোমরা দাম কমাও! জ্বালানির দাম রাজ্য কীভাবে কমাবে?”

এদিন নবান্ন থেকে প্রধানমন্ত্রীকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ শানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “কেন্দ্র টাকা কোথা থেকে পায়? ৭৫ শতাংশ টাকা নিয়ে চলে যায়। কেন্দ্রের কাছে ৯৭ হাজার কোটি টাকা পাই। কিন্তু বকেয়া টাকা দিচ্ছে না। সেই টাকা থেকে ৫০ হাজার কোটি টাকা দিক ওই ক্ষেত্রে ১০ হাজার কোটি টাকা দেব আমরা। ২০১৪ সাল থেকে পেট্রোপণ্যে মোদি সরকার ১৭ লক্ষ ৩২ হাজার কোটি টাকার বেশি আয় করেছে। এর মধ্যে রাজ্যকে কত টাকা দিয়েছে?” পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “এদিনের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য আমাদের শুনতে হয়েছে। তবে তাঁর সঙ্গে কথা বলার আমাদের কোনও সুযোগ ছিল না। একতরফা বক্তব্য প্রধানমন্ত্রীর। মুখ্যমন্ত্রীদের বলতে দেওয়া হয়নি।” পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী আরও জানান, কোভিডের মিটিংয়ে এই সমস্ত বলা উচিত হয়নি। এটা ওঁর অ্যাজেন্ডা ছিল। একইসঙ্গে বিজেপি শাসিত রাজ্যকে কেন্দ্র যে টাকা দেয় অবিজেপি রাজ্যগুলিকে সে টাকা দেওয়া হয়না বলেও এদিন অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন:একতরফা বক্তব্য পেশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী : মোদিকে তোপ মুখ্যমন্ত্রীর

উল্লেখ্য, এদিন কোভিড বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন পেট্রল–ডিজেলের দাম নিয়ন্ত্রণ করতে কেন্দ্র সরকার এক্সাইজ ডিউটি কমিয়েছে। সেই সঙ্গে রাজ্যগুলির সরকারকেও আমরা অনুরোধ করেছিলাম তারাও যেন কর কমায়। কিছু কিছু রাজ্য ভারত সরকারের সেই ভাবনার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে কর কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু একই সঙ্গে কিছু কিছু রাজ্য নিজেদের নাগরিকদের সুবিধা দেওয়ার চেষ্টা করেনি। এটা শুধু ওই রাজ্যগুলির নাগরিকদের সঙ্গে অন্যায় নয়, পাশের রাজ্যগুলির মানুষের সঙ্গেও অন্যায়।’ পাশাপাশি সরাসরি বাংলা, মহারাষ্ট্র, কেরল, তেলেঙ্গানার নাম নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমি নভেম্বরে বলেছিলাম, সব রাজ্য আমার কথা মানেনি। আমি কারও সমালোচনা করছি না। যে কোনও কারণেই হোক তখন আপনারা করতে পারেননি। যে রাজস্ব এই ৬ মাসে আপনারা তুলেছেন ভ্যাট বাবদ, সেটা আপনাদের রাজ্যেরই কাজে লাগবে। শুধু অনুরোধ করছি, আপনারা ৬ মাস আগে যেটা করতে পারেননি, সেটা এখন করুন। আপনাদের নিজের রাজ্যবাসীর স্বার্থে করুন।” মোদির সেই বক্তব্যের এদিন পাল্টা আক্রমণ শানালেন মমতা।




Previous articleতীব্র দহন, ২ মে থেকে রাজ্যের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গরমের ছুটি: জানলেন মুখ্যমন্ত্রী