বিদ্যাসাগর সেতুর নজরদারিতে বিশেষ দল গঠন রাজ্যের

শহরের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিদ্যাসাগর সেতুর(Bidyasagar bridge) উপর সর্বক্ষণ নজরদারির জন্য বিশেষ দল গঠন করা হচ্ছে। ইঞ্জিনিয়ার এবং প্রশিক্ষিত কর্মীদের নিয়ে ওই দল গঠন করা হবে। প্রশানিক সূত্রে জানা গিয়েছে সেতুর রক্ষণাবেক্ষণের দ্বায়িত্বে থাকা হুগলি রিভার ব্রিজ কমিশনার এইচআরবিসি-র(HRBC) পরিকাঠামো জনিত সমস্যার কারণে সর্বক্ষণ নজরদারি সম্ভব হচ্ছে না। এর ফলে সেতুর আলো, রাস্তা, রেলিং ইত্যাদি মেরামতির কাজে ফাঁক থেকে যাচ্ছে।

কলকাতার সঙ্গে হাওড়া এবং রাজ্যের সচিবালয় নবান্নের সংযোগ সাধন হয় বিদ্যাসাগর সেতুর মাধ্যমে। তাই এবার বাইরের পেশাদার এজেন্সি নিয়োগ করে নজরদারির দ্বায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে।
এই দলের প্রধান কাজ হবে দিনভর সেতুর উপর নজর রাখা। সামান্যতম ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকলে সঙ্গে সঙ্গে সারানো হবে। সম্প্রতি বিদ্যাসাগর সেতুর রক্ষণাবেক্ষণ নিয়ে একাধিক অভিযোগ সামনে এসেছে। ঘটেছে একাধিক দুর্ঘটনাও। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ বহু ভিভিআইপির নিয়মিত যাতায়াতের পথ এই সেতুর রক্ষণাবেক্ষণ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীও ঘনিষ্ঠ মহলে উষ্মা প্রকাশ করেছেন। তার পরেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন:মসজিদে লাউড স্পিকার বাজানো নিয়ে হুমকির জেরে রাজ ঠাকরের বিরুদ্ধে FIR

প্রশাসনিক সূত্রে খবর, নজরদারি দল প্রতি দিন তিন বার করে সেতু খুঁটিয়ে পরীক্ষা করবে। সেতুর রাস্তা যাতে মসৃণ থাকে, সে ব্যবস্থা করার পাশাপাশি রেলিং মেরামতি, ক্র্যাশ বেরিয়ার, আলো ঠিকঠাক রাখা, জঞ্জাল সাফাই এবং জমা জল সরানোর কাজে ব্যবহার করা হবে টিমকে। দলে একজন ওয়েল্ডার, লাইসেন্সধারী ইলেকট্রিশিয়ান, সাফাইকর্মী এবং হেল্পার থাকবেন। একজন ইনস্পেকশন ইঞ্জিনিয়ার প্রতিদিন খতিয়ে দেখবেন, সেতুতে কোনও সমস্যা আছে কি না। সামান্যতম অসঙ্গতি দেখা দিলেই তিনি এজেন্সিকে খবর দেবেন। এইচআরবিসি-র চিফ প্রজেক্ট ম্যানেজার-সহ দায়িত্বপ্রাপ্ত পদাধিকারীদের গোচরেও আনবেন বিষয়টি। যাতে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় মেরামতির কাজ করা যায়। আগামী দিনে কলকাতার অন্যান্য উড়ালপুল গুলিতে নজরদারির জন্য একই রকম দল গঠনের প্রস্তাব রয়েছে বলে প্রশাসনিক সূত্রে জানা গিয়েছে।




Previous articleমসজিদে লাউড স্পিকার বাজানো নিয়ে হুমকির জেরে রাজ ঠাকরের বিরুদ্ধে FIR