মোদি জমানায় সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা সূচকে বিশ্বে ১৮০ দেশের মধ্যে ভারতের স্থান ১৫০

মোদি জমানায় সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতায় এমন হস্তক্ষেপের পর সাংবাদিক ও অনলাইন সমালোচকদের নিশানা বন্ধ করতে অনুরোধ করা হচ্ছে ভারতকে

বিজেপি (BJP)ও মোদি (Modi) জমানায় বিশ্বজুড়ে সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতার সূচকে আরও পিছিয়ে গেল ভারত(India)। চলতি বছরের সমীক্ষায় উঠে এসেছে, গতবারের থেকে আরও আট ধাপ নেমে ১৮০টি দেশের মধ্যে ভারতে জায়গা ১৫০-এ।

গত বছর এই তালিকায় ১৪২ নম্বরে ছিল ভারত। সম্প্রতি, ‘‘রিপোর্টারস উইথআউট বর্ডারস’'(Reporters without borders)-এর প্রকাশিত তথ্যে এমনটাই উঠে এসেছে।

প্রসঙ্গত, মোদি জমানায় সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতায় এমন হস্তক্ষেপের পর সাংবাদিক ও অনলাইন সমালোচকদের নিশানা বন্ধ করতে অনুরোধ করা হচ্ছে ভারতকে। বিশেষ করে সন্ত্রাসবাদ ও রাষ্ট্রদ্রোহের অজুহাতে অনেক সময় সরকারের সমালোচকদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এবার তা বন্ধ করা হোক।

অন্যদিকে, রিপোর্টারস স্যান্স ফ্রন্টিয়ারস (RSF) বলেছে, মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে সম্মান জানানো উচিত কর্তৃপক্ষের। ভারত সরকারের কাজের সমালোচনা করায় রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ভুয়ো মামলায় আটক সাংবাদিকদের মুক্তি দেওয়া উচিত। স্বাধীন সংবাদ মাধ্যমের কণ্ঠরোধের চেষ্টা বন্ধ হোক। ভারত সরকারের কাজের সমালোচনা করায় অফলাইন ও অনলাইন, দুই ক্ষেত্রেই হিন্দু জাতীয়তাবাদীদের হুমকি, হেনস্তার শিকার হতে হচ্ছে সাংবাদিকদের। এই ঘটনা নিয়ে নিরপেক্ষ তদন্ত হওয়া উচিত।

উল্লেখ্য, চলতি বছর ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম সূচকে পিছিয়ে ভারতের মতোই পিছিয়ে পড়েছে প্রতিবেশি পাকিস্তান, বাংলাদেশ, মায়ানমার সহ বেশকিছু দেশ। তবে ব্যতিক্রম নেপাল। ৩০ ধাপ উঠে এবছর তাদের স্থান হয়েছে ৭৬ নম্বরে। তালিকায় প্রথম তিনে রয়েছে যথাক্রমে নরওয়ে, ডেনমার্ক ও সুইডেন।




Previous articleস্নান-খাওয়া তো দূর গ্রেফতারের পর মুখে কুলুপ এঁটেছে সুশান্ত