Weather Forecast: দক্ষিণ আন্দামান সাগরে ঘূর্ণাবর্ত, সপ্তাহ জুড়ে বৃষ্টির পূর্বাভাস

মৌসম ভবন সূত্রে খবর, বুধবার দক্ষিণ আন্দামান সাগরে একটি ঘূর্ণাবর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এর প্রভাবে শুক্রবার নাগাদ একটি নিম্নচাপ অঞ্চল তৈরি হতে পারে। সময়ের সঙ্গে সেটি আরও শক্তি বাড়াবে বলে মনে করছেন আবহবিদরা।

প্রবল তাপপ্রবাহ আর প্যাচপ্যাচে গরম আর নেই, বরং বৃষ্টি (Rain) ভিজে পরিবেশ ঠাণ্ডা হবে আগের থেকে, বলছে হাওয়া অফিস(Weather department)। তার মধ্যেই দুশ্চিন্তার ভ্রুকুটি,দক্ষিণ আন্দামান সাগরে (South Andaman Sea) তৈরি হয়েছে ঘূর্ণাবর্ত (Cyclone)। আগামী ৬ মে তা নিম্নচাপে পরিণত হতে চলেছে এবং ৮ মে গভীর নিম্নচাপে ঘনীভূত হওয়ার আশঙ্কা করছেন আবহাওয়াবিদরা (Meteorologists)। ঘূর্ণিঝড় তৈরি হলে তার গন্তব্য হতে চলেছে ওড়িশা (Odisha), তাই বাংলায় তার প্রভাব পড়তে চলেছে। আর এই খবরের জেরে ফের আয়লা (Cyclone Aila),আমফানের (Cyclone Amphan)স্মৃতি ফিরে আসার সম্ভাবনা তাজা হচ্ছে বঙ্গবাসীর।

ঘূর্ণাবর্তের জেরে দক্ষিণবঙ্গে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। নিম্নচাপ অক্ষরেখা সৃষ্টি হওয়ায় এবং বঙ্গোপসাগর থেকে রাজ্যে প্রচুর পরিমাণ জলীয়বাষ্প প্রবেশ করছে। গত সপ্তাহ থেকে দক্ষিণবঙ্গে আবহাওয়ার পরিবর্তন দেখা গেছে। বিভিন্ন জেলায় দফায় দফায় বৃষ্টি হয়েছে গত কয়েকদিনে। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস,শনিবার পর্যন্ত রাজ্যে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। পাশাপাশি চিন্তা বাড়ছে ঘূর্ণিঝড় নিয়ে। মৌসম ভবন সূত্রে খবর, বুধবার দক্ষিণ আন্দামান সাগরে একটি ঘূর্ণাবর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এর প্রভাবে শুক্রবার নাগাদ একটি নিম্নচাপ অঞ্চল তৈরি হতে পারে। সময়ের সঙ্গে সেটি আরও শক্তি বাড়াবে বলে মনে করছেন আবহবিদরা। এবং তার পর সেটি উত্তর পশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে এবং নিম্নচাপ বাড়তে পারে রবিবারের মধ্যে। এটি ওড়িশার দিকে এগোতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। যদিও মৌসম ভবনের তরফ থেকে এর গতিবিধি সম্পর্কে বিশদে জানানো হয়নি। এই ঘূর্ণাবর্ত সাইক্লোনে রূপান্তর হয় কি না, তার উপর নজর রাখছেন আবহবিদরা।

অন্য দিকে, বুধবার ও বৃহস্পতিবার দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু জেলায় ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, দুই বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ ও নদিয়াতে ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে। কালবৈশাখীরও সম্ভাবনা রয়েছে। এই দু’দিন বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টিতে ভিজতে পারে এই আট জেলা। পাশাপাশি কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলাতেও বুধবার বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। এই জেলাগুলিতে ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে। শুক্র শনি রবি এই তিনদিন হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।




Previous articleদুর্গাপুজোকে UNESCO-র স্বীকৃতির সেলিব্রেশন, শাহ থাকলেও আমন্ত্রিত নয় রাজ্যের কোনও প্রতিনিধি