পুনর্বিবেচনা না হওয়া পর্যন্ত রাষ্ট্রদ্রোহ আইন স্থগিত? কেন্দ্রের জবাব তলব আদালতের

পুনর্বিবেচনা করা হবে প্রাচীন রাষ্ট্রদ্রোহ আইন(Sedition Law), সম্প্রতি এমনটাই জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় সরকার। তবে যতদিন না আইন পুনর্বিবেচনা হচ্ছে ততদিন কি এই আইনের উপর স্থগিতাদেশ থাকবে? কেন্দ্রের কাছে এই প্রশ্নই রাখল দেশের শীর্ষ আদালত। বুধবারের মধ্যে এর জবাব দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সুপ্রিমকোর্টের(Supreme Court) তরফে। যদিও এই আইন পুনর্বিবেচনার জন্য আদালতের কাছে আরও সময় চেয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার(Cental Govt)।

এপ্রসঙ্গে মঙ্গলবার সুপ্রিমকোর্টের প্রধান বিচারপতি এনভি রামানা বলেন, “আমাদের চিন্তা যাঁদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা ইতিমধ্যে রয়েছে তাঁদের নিয়ে। যতদিন না আইনটি নতুন করে পুনর্বিবেচনা হচ্ছে ততদিন এই অভিযুক্তদের কী হবে? এই মামলাগুলো নিয়ে কী ভাবছে কেন্দ্রীয় সরকার? কাল সকালের মধ্যে সরকারের জবাব চাই।” পাশাপাশি তিনি আরও প্রশ্ন রাখেন, “যাঁরা ইতিমধ্যে আটক হয়েছেন বা যাঁদের বিরুদ্ধে এই মামলা রয়েছে তাঁদের ভবিষ্যৎ কী? এই আইন কি আপাতত স্থগিত রাখা হবে?”

আরও পড়ুন:আবহাওয়া পরিবর্তনেও কেন ৪৫ দিন স্কুল ছুটি? রাজ্যের হলফনামা তলব হাইকোর্টের

প্রসঙ্গত, রাষ্ট্রদ্রোহ আইন নিয়ে দেশে বিতর্ক দীর্ঘদিন ধরেই। এই আইন নিয়ে এর আগেও কেন্দ্রের কাছে প্রশ্ন রেখেছিল দেশের শীর্ষ আদালত। এমনকি এই আইনের মাধ্যমে সরকার ক্ষমতার অপব্যবহার করতে পারে এমন আশঙ্কার কথাও জানিয়েছিলেন বিচারপতি। এই পরিস্থিতিতে সরকারের তরফে হলফনামা দিয়ে বলা হয়, ‘কেন্দ্র সিদ্ধান্ত নিয়েছে, রাষ্ট্রদ্রোহ আইনের কিছু অংশ পরীক্ষা ও পুনর্বিবেচনা করা হবে।’ যদিও তা সংশোধন করা হবে কিনা সে বিষয়ে কিছুই জানায়নি সরকার। আদালতও চায় না এই আইনকে পুরোপুরি ছেটে ফেলা হোক।




Previous articleআবহাওয়া পরিবর্তনেও কেন ৪৫ দিন স্কুল ছুটি? রাজ্যের হলফনামা তলব হাইকোর্টের