আর্থিক  লেনদেন নিয়ে বিবাদের জেরেই  জোড়া খুন ভবানীপুরে : সিপি

আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত বিবাদের জেরেই খুন হতে হয়েছে ভবানীপুরের গুজরাতি দম্পতিকে। বৃহস্পতিবার সাংবাদিক সম্মেলন করে এ কথা জানিয়ে দিলেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার বিনীত গোয়েল। এদিন সিপি স্পষ্ট করে দিলেন ভবানীপুরের জোড়া খুন কাণ্ডের কিনারা হয়ে গিয়েছে। মাত্র তিন দিনের মাথায় ভবানীপুর খুনের রহস্য উন্মোচন হল। পুলিশ কমিশনার এদিন জানালেন, এক জন দূর সম্পর্কের আত্মীয় শাহ পরিবারর কাছ থেকে ২০১৯ সালে ১ লক্ষ টাকা ধার হিসেবে নিয়েছিলেন। আর সেই আর্থিক লেনদেনের জেরেই এই খুন হয়েছে। সম্ভবত ওই আত্মীয়ই বাকি আততায়ীদের নিয়ে যান বলেও জানালেন সিপি। সিপি  এদিন জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবারই তিন জনকে গ্রেফতার করেছে কলকাতা পুলিশ।  তবে মূল চক্রী এখনও গ্রেফতার হয়নি। খুন শীঘ্রই তাকে ধরা যাবে বলে জানানো হয়েছে।  ওই  মূল চক্রী সম্ভবত তাঁদের মেজো জামাইয়ের এক আত্মীয়। শাহ দম্পতির ব্যবসায় মন্দা চলছিল। মন্দা কাটাতে তাঁরা কিছু অর্থ ঋণ হিসাবে নিয়েছিলেন তাঁদের মেজো জামাইয়ের এক আত্মীয়ের কাছ থেকে। সেই ঋণের টাকা পুরোটা তাঁরা মেটাননি বলেও পুলিশ সূত্রে  অনুমান। ওই ঋণের টাকা মেটানো নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরেই ঝামেলা চলছিল অশোক শাহর সঙ্গে। সম্প্রতি কিছু টাকা ফেরতও দিয়েছিলেন। বাকি টাকা না মেটানোয় খুন করা হয়ে থাকতে পারে শাহ দম্পতিকে।

Previous articleবিহারে অপশাসন: ছেলের দেহ পেতে ভিক্ষা বৃদ্ধ দম্পতির