তৃণমূল পরিষদীয় দলের বৈঠক: বিধানসভায় দলের বিধায়কদের ১০০ শতাংশ উপস্থিতিতে জোর

বিধানসভার অধিবেশন চলাকালীন দলের সব বিধায়কদের একশো শতাংশ হাজিরা দিতেই হবে, এই মর্মে তৃণমূল কংগ্রেস(TMC) বিধায়কদের নির্দেশ দিল দল। শুক্রবার বিধানসভার(Assembly) নশৌর আলি কক্ষে পরিষদীয় দলের বৈঠক হয়। সেখানেই বিধায়কদের হাজিরা নিয়ে দলের শীর্ষ নেতৃত্বের মনোভাব বুঝিয়ে দেন পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়(Partha Chaterjee), ফিরহাদ হাকিম, অরূপ বিশ্বাস, চন্দ্রীমা ভট্টাচার্যরা।

বৈঠকে শীর্ষ নেতৃত্বের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, অনেক বিধায়কই বিধানসভায় অধিবেশনের শুরুতে কিছুক্ষণ থেকে চলে যান। এখন থেকে এটা আর করা যাবে না। অধিবেশনের শুরু থেক শেষ প্রর্যন্ত পুরো সময়ই থাকতে হবে। কেউ কেউ প্রস্তাব দেন, দিনে তিনবার করে বিধায়কদের স্বাক্ষরের পক্ষে। কিন্তু এখনই সে পথে হাঁটতে নারাজ দল। শুক্রবারের বৈঠকের পর বিধানসভায় বিধায়কদের হাজিরার হার ও মনোভাব বুঝেই ধাপে ধাপে পরবর্তী সিদ্ধান্ত ভাবা হবে।

এদিনের বৈঠকে বিধায়কদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, আরও বেশি করে সরকারের উন্নয়নের কথা বিধানসভায় তুলে ধরতে। একই সঙ্গে নিজের নিজের এলাকার উন্নয়নের জন্যও বিধানসভায় বলতে হবে। বিশেষ করে নতুন বিধায়কদের বলা হয়েছে, আরও বেশি করে প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশগ্রহণ করতে। বিধানসভা লাইব্রেরীকে ব্যবহার করে নতুন বিধায়করা অনেক কিছু শিখতে পারে বলেও পরিষদীয় দলের তরফে জানিয়েছেন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

চলতি বিধানসভার অধিবেশনে প্রায় ছ’টি বিল আনা হবে। বিএ কমিটির বৈঠকে তেমনটাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি পরিষদীয় মন্ত্রী বলেন, অনেকসময় দেখা যায় যেদিন মুখ্যমন্ত্রী বিধানসভায় আসবেন সেদিন অনেক বিধায়করা একঝলক এসেই বেরিয়ে যান। এটা করা চলবে না। কোনও অবস্থাতেই যাতে বিধানসভার মর্যদা ও গরিমা ক্ষতি না হয় সেবিষয়ে সকল বিষয়ে নজর রাখতে বলেছে তৃণমূল পরিষদীয় দল।

আরও পড়ুন-সংখ্যালঘুরা হৃদয় দিয়ে আগলে রেখেছে বাংলা, তাই প্ররোচনায় পা নয়! নুপূর কাণ্ডে বার্তা তৃণমূলের

 

Previous articleসংখ্যালঘুরা হৃদয় দিয়ে আগলে রেখেছে বাংলা, তাই প্ররোচনায় পা নয়! নুপূর কাণ্ডে বার্তা তৃণমূলের