উত্তরপ্রদেশে বন্দি পেটানোর ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই চাপে যোগী প্রশাসন

উত্তরপ্রদেশের(UTTARPRADESH) লকআপে বন্দি পেটানোর ভিডিএ প্রকাশ্যে আসতেই চাপে যোগী প্রশাসন।ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, লাঠি দিয়ে কয়েক জনকে পেটাচ্ছেন দুই পুলিশকর্মী। একের পর এক লাঠির ঘা পড়ছিল তাঁদের পা থেকে কোমরে।তারা পরিত্রাহী চিৎকার করছিলেন , কিন্তু পুলিশ কর্মীদের সেদিকে কোনও নজর ছিল না।।
এমনই একটি ভিডিও টুইট করেছেন সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদব( AKHILESH YADAV)। ভিডিওটি পোস্ট করার পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশে লকআপে বন্দি মৃত্যুর প্রসঙ্গও টেনে এনেছেন তিনি। দাবি করা হচ্ছে, ভিডিওটি উত্তরপ্রদেশের সাহারানপুরের কোতওয়ালি থানার। যাঁদের পেটানো হচ্ছে তাঁরা বিক্ষোভকারী। তাঁদের বিরুদ্ধে পাথর ছোড়ার অভিযোগ উঠেছে।
অখিলেশ টুইট করে লিখেছেন, ‘লকআপে এই ধরনের ঘটনার বিরুদ্ধে সরব হওয়া উচিত। না হলে ন্যায়বিচার পাবে না ইকবালরা। রাজ্যের পুলিশ প্রশাসন নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অখিলেশ।তিনি টুইট করেন, ‘লকআপে বন্দি মৃত্যুর ঘটনায় উত্তরপ্রদেশ শীর্ষে। মানবাধিকার লঙ্ঘনে এক নম্বরে। দলিত নিপীড়নেও শীর্ষে। ভিডিওটি ইতিমধ্যেই ভাইরাল। সাহারানপুরের(SAHARANPUR) এসএসপি আকাশ তোমর দাবি করেছেন, এটি সাহারানপুরের ঘটনা নয়। তিনি বলেছেন, ভিডিওটি দেখিনি। তবে আমার জেলায় এই ধরনের ঘটনা ঘটেনি। জানিও না এই ঘটনা কোথাকার। কী কারণে এই ঘটনা তা-ও জানা নেই। তবে এই ঘটনা কোথাকার তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কোনও পুলিশকর্মী দোষী প্রমাণিত হলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Previous articleপানিহাটির দই-চিঁড়ে মেলায় গরমে মৃত ৩, অসুস্থ আরো ৫০ পুণ্যার্থী