মোবাইলে প্রতারণা বন্ধে তৎপর হচ্ছে রাজ্য ক্রেতা সুরক্ষা দফতর, জানালেন মানস

মোবাইলে মাধ্যমে প্রতারণা বন্ধে আরও তৎপর হচ্ছে রাজ্য ক্রেতা সুরক্ষা দফতর। বুধবার, বিধানসভা (Assembly) অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে দিনহাটার (Dinhata) তৃণমূল (TMC) বিধায়ক উদয়ন গুহ (Udayan Guha) অভিযোগ করেন, মোবাইলে ফোন করে লটারি জেতা, কেওয়াইসি আপডেট-সহ একাধিক কথা বলে প্রতারিত করার ঘটনা বেড়ে গিয়েছে। উদয়নের অভিযোগ, তাঁর নিজের সঙ্গেই এরকম প্রতারণা হয়েছে। শুধু তাই নয়, কোনও তথ্য প্রমাণ না দেখিয়ে কী করে এই প্রতারকরা সহজেই মোবাইলের সিম পেয়ে যাচ্ছেন, সেই নিয়েও তিনি প্রশ্ন তোলেন। এই প্রতারণা নিয়ে সাধারণ মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধিতে পুলিশের পাশাপাশি ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের আরও বেশি করে প্রচার করার অনুরোধ জানান। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রতারণা আটকাতে কী ব্যবস্থা নিচ্ছে তাঁর দফতর? ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের মন্ত্রী মানস ভুঁইয়ার (Manas Bhuiya) কাছে জানতে চান উদয়ন গুহ।

উত্তরে মন্ত্রী মানস ভুঁইয়া বলেন, উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে দ্রুত এই প্রতারণা বন্ধ করার চেষ্টা করা হবে। মানস ভুঁইয়া বলেছেন, “খুবই গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন। সত্যিই মানুষকে এ ভাবে ঠকানো হচ্ছে। আমি ইতিমধ্যেই দফতরের প্রিন্সিপ্যাল সেক্রেটারি রশ্নি সেনকে নির্দেশ দিয়েছি আমাদের আইটি সচিব রাজীব কুমারের সঙ্গে কথা বলতে। এবং আলোচনা করে কোনও একটা সমাধানের পথ বের করতে। এই প্রতারণা বন্ধ করতে যদি আধুনিক কোনও প্রযুক্তির সাহায্য নিতে হয়, তাও আমরা নেব। তবে একটা বিষয় হল, এটা সাইবারক্রাইমের অংশ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এখন প্রত্যেক জেলাতেই সাইবারক্রাইম দফতর করে দিয়েছেন। তাই এই ব্যাপারে কিছু করতে হলে আমাদের পুলিশের সঙ্গে কথা বলতে হবে। বিজ্ঞান ও আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্য নিয়ে যৌথভাবে আমাদের এই ব্যাপারে কাজ করতে হবে। যেহেতু এটা কেন্দ্রীয় টেলিকম দফতর, ট্রাই-এর ব্যাপার, তাই তাদের সঙ্গেও আলোচনা করতে হবে। আমরা যে কোনও প্রযুক্তির সাহায্যের প্রয়োজন হলে নেব। এজন্য আমরা রাজ্য পুলিশের ডিজি, স্বরাষ্ট্র সচিব এবং পুলিশ কমিশনারের সঙ্গেও আলোচনা করব।“

আরও পড়ুন- অসমের বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি, বাড়ছে মৃত্যু

 

 

Previous articleঅসমের বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি, বাড়ছে মৃত্যু