টাকা-সোনা না পেয়ে আপেল- ওমলেট খেয়ে পালিয়ে গেল চোর

চুরি করতে এসে চারটি আলমারি, লকার , ওয়ারড্রোব সব কিছু ভেঙে তছনছ করেও টাকা সোনাদানা কিছুই মেলেনি । শেষে হতাশ হয়ে চোর ফ্রিজ খুলে দেখে বেশ কয়েকটি আপেল রয়েছে। আর রয়েছে ডিম। ডিম বের করে ওমলেট করে খেয়েছে । আর আপেল খেয়েছে। খেয়ে বাড়ি থেকে উধাও। চুরি করতে এসে হতাশ চোর শেষ পর্যন্ত আপেল এবং ডিম ভাজা খেয়ে চলে গেল। অভিনব এই ঘটনাটি ঘটেছে রাজস্থানের ভীমপুরে। ভীমপুর থানার কাছেই জনৈক দীনেশ বিশ্বাসের বাড়িত। সেই দীনেশের বাড়িতেই এই চুরির ঘটনাটি ঘটেছে। দীনেশ রাজস্থানে গ্রামীণ চিকিৎসক হিসেবে পরিচিত। বাড়িতে তাঁর দুই ছেলেমেয়ে আর স্ত্রী থাকেন। বর্তমানে ছেলে পড়াশোনার কারণে কলকাতায় থাকেন। তাঁর সঙ্গে থাকে দীনেশের স্ত্রীও। মেয়ে ভীমপুরের বাড়িতে থাকলেও একা থাকতে হবে বলে রাতে পাশেই মামার বাড়িতে চলে যায়। ওই বাড়িরই নীচের তলায় ভীমপুর থানার এক জন মহিলা কনস্টেবল ভাড়া থাকেন।

ওই মহিলা কনস্টেবল সেদিন রাতে থানায় ডিউটিতে ছিলেন । ফলে, গোটা বাড়ি ফাঁকাই ছিল। আর সেই সুযোগেই চোর আসে। পুলিশ ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় যুক্ত সন্দেহে ৫ জনকে আটক করেছে। তাদের জেরা চলছে। কিন্তু যেহেতু সাংঘাতিক বড় ক্ষতির ঘটনা কিছু ঘটেনি । তাই তাদের বড় সাজা হয়তো হবেনা । কিন্তু থানার অদূরে এমন ঘটনা কী করে ঘটল তা নিয়ে ইতিমধ্যে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। জানা গিয়েছে ওই দিনই রাতে এই বাড়ির অদূরে একটি মোটরবাইকের শো-রুম ও হোটেলে হানা দিয়েছিল একদল দুষ্কৃতী । তবে সেখান থেকেও বিশেষ কিছু নিতে পারেনি বলে জানা গিয়েছে। যদিও সবকটি ঘটনার সঙ্গে একটাই দুষ্কৃতীদের দল যুক্ত কী না সে ব্যাপারে এখনও পুলিশ নিশ্চিত নয় আটক ৫ জনকে জেরা করে সব তথ্যই মিলবে বলে পুলিশের অনুমান।

 

 

 

Previous articleEarthquake: আফগানিস্তানের ভূমিকম্প, কেঁপে উঠল পড়শি পাকিস্তানও