এখনও টুইটে ধনকড়কে ট্যাগ! শুভেন্দুকে মোক্ষম খোঁচা দিলেন কুণাল

এখন বড় পদের জন্য লড়তে ধনকড় বাংলার রাজ্যপালের পদ ছাড়লেও অভ্যাস ছাড়তে পারেনি বিজেপি।

বাংলার রাজ্যপাল পদে জগদীপ ধনকড় (Jagdeep Dhankar) থাকাকালীন, রাজভবনকে বৃহত্তর দলীয় কার্যালয় করে ফেলেছিল বঙ্গ বিজেপি (BJP)। রাজ্য প্রশাসন ও শাসকদলের বিরুদ্ধে সব নালিশ নিয়ে বিকেল হলেই পৌঁছে যেত ধনকড়ের কাছে। এই নিয়ে তীব্র আক্রমণ করেছে তৃণমূল (TMC)। এখন বড় পদের জন্য লড়তে ধনকড় বাংলার রাজ্যপালের পদ ছাড়লেও অভ্যাস ছাড়তে পারেনি বিজেপি। কারণ, নিজের টুইটে এখনও ধনকড়কে ট্যাগ করছেন বিজেপি বিধায়ক তথা রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। আর এই নিয়েই তাঁকে মোক্ষম খোঁচা দিলেন তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh)। শুভেন্দুর টুইটের ছবি পোস্ট করে তীব্র কটাক্ষ করে কুণাল তাঁকে মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে বলেন।

টুইটে কুণাল লেখেন,
“হ্যালো,
একটু মনে করিয়ে দিই
এই ব্যক্তি এখন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল নন। তিনি পদত্যাগ করে অন্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।“

এরপরেই মোক্ষম খোঁচা দেন কুণাল। লেখেন,
“এই টুইটটি স্পষ্টভাবে মানসিক যন্ত্রণা এবং হতাশার ইঙ্গিত দেয়। খুব দ্রুত মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে।“
টুইটে বিতর্কিত অংশটি লাল টিক দিয়ে দেন কুণাল।

বাংলার নয়া রাজ্যপাল হিসেবে শপথ নিয়েছেন লা গণেশান। রাজভবনে তাঁর শপথগ্রহণে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee), মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী (Harikrishna Dwibedi), রাজ্য পুলিশের ডিজি মনোজ মালব্য (Manoj Malabya)। কিন্তু এই অনুষ্ঠানে দেখা যায়নি বিরোধী দলনেতাকে। আর এই নিয়ে রাজ্য সরকারকে কাঠগড়ায় তুলে একটি টুইট (Tweet) করেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক। এদিন নাম না করে শুভেন্দুর টুইটের জবাব দেন কুণাল। লেখেন, নিজে মন্ত্রী হতে না পেরে নিজের বাবার শপথ বয়কট করে দিল্লি থেকে যিনি ফিরে এসেছিলেন, তিনি আজ অন্যের শপথে যেতে পারেনি বলে টুইট করছেন।

এরপরের টুইটে কুণাল দেখান, শুভেন্দু তাঁর টুইটে জগদীপ ধনকড়কে ট্যাগ করেছেন। আর তা নিয়েই মোক্ষম খোঁচাটি দেন তৃণমূল মুখপাত্র। তাঁকে তীব্র কটাক্ষ করে মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়ে বলেন তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক।

 

 

 

Previous articleসীমান্তের ১০০ কিমির মধ্যে হাইওয়ে সম্প্রসারণে পরিবেশগত ছাড়পত্রের নেই: কেন্দ্র