মেঘালয় বিজেপির রাজ্য সহ-সভাপতির বিরুদ্ধে মধুচক্র চালানোর অভিযোগ

মেঘালয়(Meghalaya) বিজেপির(BJP) সহ সভাপতির বিরুদ্ধে মধুচক্র চালানোর অভিযোগ উঠল। অভিযুক্ত ওই নেতার নাম বার্নার্ড এন মারাক(Barnad N Marak)। আর সেই অভিযোগ থেকে নেতাকে রেহাই দিতে রাজ্যপালের দ্বারস্ত হলেন মেঘালয়ের বিজেপি সভাপতি আর্নেস্ট মাওয়ারি(Arnest Maoyari)। গোটা ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে মেঘালয়ে। এর পাশাপাশি ওই বিজেপি নেতার রিসর্ট রিম্পু বাগানে পুলিশি অভিযান প্রসঙ্গে নেতৃত্বের দাবি, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার বার্নার্ড।

জানা গিয়েছে, মেঘালয়ের ওয়েস্ট গারো হিল জেলার পুলিশ শনিবার বার্নার্ডের মালিকানাধীন একটি বিল্ডিংয়ে অভিযান চালায়। আর সেখানেই মধুচক্রের সন্ধান পায় তারা। ওই রিসর্ট থেকে ৭৫ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ওয়েস্ট গারো হিল জেলা পুলিশ চিফ বিবেকানন্দ সিং রাঠোর সংবাদমাধ্যমকে জানান, রিম্পু বাগান এলাকায় যে বিল্ডিং দেখা গিয়েছে তার যে ডিজাইন, সেখান থেকে যা পাওয়া গিয়েছে সেই অনুসারে প্রাথমিকভাবে বোঝা যাচ্ছে ওই বিল্ডিংটা গণিকালয় হিসাবে ব্যবহার করা হত। পুলিশের তরফে এই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার পর মুখ পুড়েছে মেঘালয় বিজেপির।

যদিও বিজেপির দাবি, ফাঁসানো রাজ্য বিজেপির সহ সভাপতিকে। মেঘালয়ের বিজেপি সভাপতি আর্নেস্ট মাওয়ারির দাবি, বার্নার্ডের জিবনের ঝুকি রয়েছে। তাই রাজ্যপালের কাছে অনুরোধ তাঁকে এই অভিযোগ থেকে রেহাই রেহাই দেওয়া হোক। তবে বিজেপির সহ-সভাপতির বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে তাতে ওই বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে রীতিমত ক্ষুব্ধ মেঘালয়বাসী।


Previous articleএক ফ্রেমে ছবি থাকা মানেই পরিচিত নয়: কুৎসার বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন মমতা