৩ বিধায়ককে গ্রেফতারির পর টাকার বান্ডিল নিয়ে পুলিশের জালে ঝাড়খণ্ডের আইনজীবী

বান্ডিল বান্ডিল টাকা নিয়ে বাংলা থেকে গ্রেফতার হয়েছেন ঝাড়খণ্ডের তিন কংগ্রেস বিধায়ক। ধৃতদের ১০ দিনের হেফাজতে নিয়ে তাঁদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া টাকার রহস্যভেদ করতে তদন্তভার নিয়েছে সিআইডি। এ নিয়ে কার্যত তোলপাড় রাজনৈতিক মহল। আর এরই মাঝে প্রতারণার অভিযোগে প্রায় ৫০ লক্ষ টাকা নিয়ে কলকাতার এক শপিং মলে পুলিশের হাতে ধরা পড়লেন ঝাড়খণ্ডের এক আইনজীবী। ধৃত আইনজীবীর নাম রাজীব কুমার।

আরও পড়ুন:পার্থ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও কোটি কোটি টাকার কাটমানি খেয়েছেন! ইডির হাতে চাঞ্চল্যকর তথ্য

জানা গেছে, একটি জনস্বার্থ মামলা প্রত্যাহারের জন্য কলকাতার এক ব্যবসায়ীর থেকে ওই আইনজীবী ১০ কোটি টাকা চেয়েছিলেন। তার পর শুরু হয় দরা কষাকষি। শেষে এক কোটি টাকায় রফা হয়। সেইমতোই দাবির টাকার প্রথম কিস্তি নিতে কলকাতায় আসেন ঝাড়খণ্ডের ওই আইনজীবী।রবিবার এই টাকা লেনদেনের সময় রাজীবকে হেয়ার স্ট্রিট থানা এলাকা থেকে হাতেনাতে ধরে কলকাতা পুলিশ। কলকাতা থেকে ঝাড়খণ্ডের এই আইনজীবী গ্রেফতারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। লালবাজার সূত্রে খবর, এই টাকার পেছনে আর কে কে জড়িত রয়েছে তা জানার চেষ্টা চলছে।

কলকাতা পুলিশ তরফে খবর, রাজীব কুমার এখনও পর্যন্ত ৬০০-এর বেশি জনস্বার্থ মামলা করেছেন। এমনকি মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের বিরুদ্ধে মামলাও করেন তিনি। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশে দাবি, এই জনস্বার্থ মামলাকে হাতিয়ার করে রীতিমত তোলা আদায় করতেন এই আইনজীবী।

Previous articleতৃণমূল সংগঠনে ব্যাপক রদবদল, জেলা সভাপতি পদে একাধিক মহিলা মুখ