সবুজ বাজি নিশ্চিত করতে রাজ্যের সঙ্গে নজরদারিতে নিরি-পেসো, নির্দেশ হাই কোর্টের

দীপাবলি-কালীপুজোয় পরিবেশ দূষণ আটকাতে সক্রিয় কলকাতা হাই কোর্ট (Calcutta High Court)। সবুজ বাজি বিক্রি ও ব্যবহার নিশ্চিত করতে রাজ্য পুলিশের পাশাপাশি দুই কেন্দ্রীয় সংস্থাও বাজি বাজারে নজরদারি চালাবে- নির্দেশ হাই কোর্টের। ন্যাশানাল এনভায়রনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং রিসার্চ ইনস্টিটিউট (NEERI) এবং পেট্রোলিয়াম অ্যান্ড এক্সপ্লোসিভস সেফটি অরগানাইজেশন (PESO)-কে রাজ্যের এই নজরদারির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার, বাজি মামলার শুনানিতে হাই কোর্টের বিচারপতি জয়মাল্য বাগচীর ডিভিশন বেঞ্চ জানায়, কলকাতার বাজি বাজারে যাতে শুধুই ‘সবুজ’ বাজি বিক্রি হয়, তা সুনিশ্চিত করতে হবে পুলিশকে। নির্দেশ কার্যকর হল কি না আদালত খোলার এক সপ্তাহের মধ্যে তার রিপোর্ট জমা দিতে হবে কলকাতার পুলিশ কমিশনারকে। ছুটির পর এই রিপোর্ট জমা দিতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

বিচারপতি জানান, বাজির বাজারে কড়া নজরদারি চালাতে হবে। ‘সবুজ’ বাজি তৈরি ও বিক্রির বিষয়ে সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court) ও পরিবেশ আদালতের নির্দেশ মেনে রাজ্যের সঙ্গে সহযোগিতা করবে পেসো ও নিরি।

পরিবেশ দূষণের কারণে বাজি বন্ধ করতে গত বছর কলকাতা হাই কোর্টে ২টি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়। কয়েকটি বাজি সংগঠন হাই কোর্টের সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়। শীর্ষ আদালতও বলেন, দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের ছাড়পত্র নিয়েও পরিবেশবান্ধব বাজি ব্যবহার করতে হবে। এ বছর সেই বিষয়টি নিশ্চিত করতে পেসো ও নিরিকে দায়িত্ব দিল হাই কোর্ট।

Previous articleকম্পিউটার ও কম্পিউটিং, কিছু ফিরে কথা