সায়গলকে দিল্লি নিয়ে যেতে চেয়ে হাইকোর্টে ইডি, আজ মামলার শুনানি

গরু পাচার মামলায় ধৃত সায়গল হোসেনকে হেফাজতে পেতে মরিয়া এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি। তাঁকে দিল্লি নিয়ে যেতে চান কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। সেই আবেদন করে কলকাতা হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে ইডি। আজ, মঙ্গলবার ১১টায় বিচারপতি তীর্থঙ্কর ঘোষের সিঙ্গল বেঞ্চ এই মামলা শুনানির হবে।

আরও পড়ুন:সায়গল হোসেনকে হেফাজতে পেতে জরুরি ভিত্তিতে শুনানির আবেদন ইডির

গরু পাচার মামলায় সায়গলকে নাগালে পেতে তাই মরিয়া ইডি। কিন্তু কলকাতায় নয়, সোজা দিল্লি নিয়ে গিয়ে সায়গলকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। বর্তমানে জেল হেফাজতে রয়েছেন সায়গল। ইতিমধ্যেই সেখানে গিয়ে তাকে জেরা করেছে ইডি। এমনকি সায়গল হোসেনকে অ্যারেস্ট মেমোতে সই করিয়ে ‘শোন অ্যারেস্ট’ দেখিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। কিন্তু আইনি জটিলতায় হেফাজতে নিতে পারেনি তাঁকে। নিম্ন আদালত ট্রানজিট রিমান্ডের আবেদন গ্রহণ করেনি। ফলে থমকে গিয়েছে সায়গলকে দিল্লি নিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া। সে কারণেই তড়িঘড়ি কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ ইডি।

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহেই সায়গলকে আসানসোল জেলের মধ্যেই গ্রেফতার করে ইডি। সায়গলকে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রোডাকশন ওয়ারেন্ট জারি করে ট্রানজিট রিমান্ডের আর্জি জানায় ইডি। যদিও তা প্রথমে শোনেননি পশ্চিম বর্ধমান জেলা আদালতের বিচারক। সেদিন সন্ধ্যায় ফের আসানসোল ডিস্ট্রিক্ট ভ্যাকেশনাল কোর্ট বা আসানসোল জেলা অবসরকালীন বিশেষ আদালতের দ্বারস্থ হয় ইডি। কিন্তু পশ্চিম বর্ধমান জেলা আদালতের বিচারক রত্না রায় লিখিতভাবে জানান, সংশ্লিষ্ট মামলার কেস রেকর্ড দেখার পরিসর বা এক্তিয়ার নেই অবসরকালীন আদালতের। মামলাটি খারিজ হয়ে যায়। এরপরই হাই কোর্টে আসার সিদ্ধান্ত নেয় ইডি।

Previous articleToday market price : আজকের বাজারদর