এবার কালীপুজোর আগেই আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং

এতে উপকূলীয় এলাকা লন্ডভন্ড হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা

এবার কালীপুজোর আগেই ফের ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস । চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে সাগরে একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে, যা পরবর্তী সময়ে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়ে সুপার সাইক্লোনের শক্তি অর্জন করতে পারে। এতে উপকূলীয় এলাকা লন্ডভন্ড হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।তারা জানিয়েছেন, আগামী সপ্তাহের শেষের দিকে বঙ্গোপসাগরে একটি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি হতে পারে। এটি ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ কিংবা ভারত-বাংলাদেশের উপকূলের কোনও একটি স্থান দিয়ে স্থলভাগ পার হওয়ার আশঙ্কা।

তবে এটি কখন সৃষ্টি হবে, এটি শক্তিশালী হবে কি-না, তা এখনই বলা সম্ভব নয়।
মৌসম ভবন সূত্রে জানা যাচ্ছে, সম্ভাব্য এই ঘূর্ণিঝড়টি নিম্নচাপে পরিণত হবে ১৭ অক্টোবর, যা ১৮ অক্টোবরের মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হওয়ার সম্ভাবনা। সম্ভাব্য এই ঘূর্ণিঝড়টির নাম হবে-সিত্রাং।
তিনদিন আগের পূর্বাভাসে নির্দেশ ছিল, সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়টি বাংলাদেশ ও ভারতে পশ্চিমবঙ্গের সুন্দরবন উপকূলের ওপর দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করতে পারে।আশঙ্কা করা যাচ্ছে, সম্ভাব্য এই ঘূর্ণিঝড়টি স্থলভাগে আঘাত করার সম্ভাবনা রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের সুন্দরবন উপকূলের মাঝামাঝি যেকোনও একটি স্থানে।
গবেষকরা বলছেন, ‘সর্বশেষ পূর্বাভাস অনুযায়ী, সম্ভাব্য এই ঘূর্ণিঝড়টি সুপার সাইক্লোনের শক্তি অর্জন করতে পারে। অর্থাৎ এর বাতাসের গতিবেগ ঘূর্ণিঝড় সিডর কিংবা আম্পানের মতো (ঘণ্টায় ২২০ কিলোমিটার থেকে ২৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত) হতে পারে।
আবহাওয়া বিশেষজ্ঞদের মতে সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়টি যে স্থানে আঘাত করবে সেই স্থানের উপকূলীয় এলাকায় ১৫ থেকে ২০ ফুট পর্যন্ত উচ্চতার জলোচ্ছ্বাস হতে পারে, যদি উপকূলের আঘাত হানার সময় বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ১৫০ থেকে ২০০ কিলোমিটারের মধ্যে থাকে।’
জানা গিয়েছে, ঘূর্ণিঝড়ের কারণে সমুদ্র পৃষ্ঠের বায়ুচাপ ৯৪১ মিলিবার পর্যন্ত নেমে যেতে পারে। বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ২১০ থেকে ২৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত উঠতে পারে। এই গতিবেগে উপকূলে আঘাত হানলে ২০০৭ সালের সিডরের মতই ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে বলে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। ঝড়ের ফলে উপকূলীয় এলাকায় ১৫ থেকে ২০ ফুট পর্যন্ত উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসও হতে পারে বলেও জানা গিয়েছে। বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থার নামের ক্রম অনুযায়ী থাইল্যান্ড এইবারের ঝড়ের নাম দিয়েছে সিত্রাং।

Previous articleরাজ্য সরকারের আয়োজনে বুধবার বিজয়া সম্মিলনী