সংবাদমাধ্যমে প্রাসঙ্গিক থাকতে রাজনৈতিক নেতাদের কটু কথার প্রতিযোগিতা চলছে: তীব্র কটাক্ষ বিমানের

সংবাদমাধ্যমে প্রাসঙ্গিক থাকার জন্য রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে কটু কথা বলার প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। এটা কখনোই বাঞ্ছনীয় নয়। সোমবার বিধানসভা ভবনে প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুর জন্মজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে এই মন্তব্য করেন অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় (Biman Banerjee)। রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মূর্মুকে (Drupodi Murmu) নিয়ে রাজ্যের মন্ত্রী অখিল গিরির (Akhil Giri) বেফাঁস মন্তব্য প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিমান বলেন, ধারাবাহিকভাবে ওঁকে (অখিল গিরি) উত্ত্যক্ত করা হয়েছিল। তাও এই ধরনের মন্তব্য উচিত নয়। মন্ত্রীর আরও সংযত হওয়া উচিত।

এর পরেই তীব্র কটাক্ষ করে বিধানসভার অধ্যক্ষ বলেন, ”আগেও বলেছি, সংবাদ মাধ্যমে গুরুত্ব পাওয়ার জন্য কটু কথা বলার প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। এটা বাঞ্ছনীয় নয়। একটা সীমা থাকা উচিত।’ যদিও অখিল গিরিকে উত্যক্ত করা হয়েছিল বলেও জানান অধ্যক্ষ। তিনি বলেন, তৃণমূল অখিল গিরির মন্তব্য সমর্থন করে না।

প্রধান বিরোধী দল বিজেপি এবিষয়ে বিধানসভার আসন্ন অধিবেশনে আলোচনার দাবি জানিয়েছে। অধ্যক্ষ বলেন, “বাইরে কে কী আলোচনা করলেন তা নিয়ে বিধানসভায় আলোচনার সুযোগ নেই। ওরা আগে প্রস্তাব দিন। বিধানসভার বিধি খতিয়ে দেখে এ ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করব।“ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, সমাজের পিছিয়ে পড়া অংশের উন্নয়নে অনেক কাজ করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। তিনি অত্যন্ত দূরদর্শী।

অখিলের মন্তব্যের নিন্দা করলেও তাঁকে উত্যক্ত করা হয়েছিল বলে মন্তব্য করেন রাজ্যের কৃষি ও পরিষদীয় মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ও। বিধানসভায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “উনি যে মন্তব্য করেছেন তা সমীচীন নয়। ‌আমাদের দল কঠোর ভাষায় সমালোচনা ও নিন্দা করেছে। সব মানুষের সহ্য ক্ষমতা এক হয় না। ওকে অনেক কটু কথা বলা হয়েছে। ওর বাক্য বিন্যাসে হয়তো ভুল হয়েছে। রাষ্ট্রপতি বা কোনও মহিলা, কাউকে টেনে এই ধরনের মন্তব্য সমীচীন নয়।“

বিরোধীদের পাল্টা আক্রমণ করে শোভনদেব বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্পর্কেও অনেক খারাপ কথা বলা হয়েছিল। তা নিয়ে কোনও আলোচনা বা মিডিয়া ট্রায়াল হয়নি। একজন কিছু বললে তার জন্য গোটা দল খারাপ হয় না।“ তবে শোভনদেবের অভিযোগ, বিরোধীরা আদিবাসী সমাজের মানুষকে ক্ষেপিয়ে তোলার চক্রান্ত করছে। কিন্তু তাঁরা সরকারের পাশেই আছেন বলে মত পরিষদীয় মন্ত্রীর।

Previous articleআপার প্রাইমারি চাকরিপ্রার্থীদের বিক্ষোভ ঘিরে ধর্মতলায় ধুন্ধুমার