শিলিগুড়ি থেকে বিনপুর- কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়াল বামেরা, দীর্ঘ বছর পরে জঙ্গলমহলে লালঝান্ডা

বিজেপি দেশের বড় শত্রু। শিলিগুড়ির সভা থেকে বিজেপি হটাওয়ের ডাক দিল CPIM। শনিবার, শিলিগুড়িতে (Siliguri) মিছিল করে বামেরা। পরে জনসভা থেকে বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ করেন সিপিআইএমের রাজ্য সম্পাদক মহম্মদ সেলিম (Mohammed Salim)।

দেশের মানুষের উপর একের পর এক জনবিরোধী নীতি চাপিয়ে দিচ্ছে কেন্দ্রের মোদি সরকার। তাদের বিভাজনের রাজনীতির ফলে হিংসা ছড়াচ্ছে। এর বিরুদ্ধে এদিন সুর ছড়ান সেলিম। দেশ বাঁচাতে বিজেপিকে (BJP) কেন্দ্র থেকে উৎখাত করার ডাক দেন তিনি। আগে বামেদের শক্ত ঘাঁটি ছিল শিলিগুড়ি। ২০১১-তেও সেখান থেকে যেতে সিপিআইএম নেতা অশোক ভট্টাচার্য (Ashok Bhattacharya)। তবে, ২০২১-এ তৃণমূলের কাছে পরাজিত হন অশোক। শিলিগুড়ি পুরসভাও বামেদের হাত ছাড়া। এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে দলীয় নেতা-কর্মীদের ভোকাল টনিক দিতে মিছিল ও সভার আয়োজন করে বামেরা।

এদিকে তৃণমূল (TMC) আমলে বদলেছে জঙ্গলমহলের ছবি। শান্তি ফিরেছে এলাকায়। আর তারই ফলস্বরূপ শনিবার বিনপুরে মিছিল করল CPIM। মা*ওবাদী দাপটে বাম জমানার শেষের দিকে জঙ্গলমহল দাঁত ফোটাতে পারেনি সিপিআইএম। ২০১১-য় জঙ্গলমহল পুরোপুরি তৃণমূলের দখলে চলে যায়। মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে উন্নতির কারণে মূল স্রোতে ফেরেন মা*ওবাদীরা। ২০১৯-এর লোকসভা ভোটে জঙ্গলমহলে কিছুটা প্রভাব বিস্তার করে বিজেপি। কিন্তু গত ১১ বছরে এইসব পা রাখতে পারেনি সিপিআইএম। এবার সেই বিনপুরই এদিন দেখা দেখা গেল লাল ঝান্ডার মিছিল। বিনপুর-২ ব্লকের শিলদা ও বিনপুর-১ ব্লকের আঁধারিয়া, পালোইডাঙা এবং রামগড় এলাকায় সিপিএমের জাঠার আয়োজন করা হয়। পঞ্চায়েত নির্বাচনে‌ লড়াইয়ের বার্তাও দেওয়া হয়। এলাকায় ঘুরে ১০০দিনের কাজে টাকা না পাওয়া-সহ একাধিক ইস্যুতে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে প্রচার চালায় সিপিএম। ঢাক-ঢোল নিয়ে মিছিল করেন স্থানীয় বাম নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন- শুভেন্দুর পাল্টা রামনগরেই ২৫ নভেম্বর সভা করবে তৃণমূল

 

 

 

Previous articleমর্মান্তিক! ভাইঝির পারিবারিক বিবাদ মেটাতে গিয়ে মৃ*ত্যু কাকার, উত্তপ্ত বজবজ