কামালগাজিতে কারখানায় গ্যাস লিকে অসুস্থ একাধিক, চলছে কুলিং ডাউন

সোমবার বিকেলে আচমকা ঠান্ডা পানীয়ের কারখানায় অ্যামোনিয়া গ্যাসের (Ammonia Gas) সিলিন্ডার (Cylinder) লিক করে আতঙ্ক ছড়ায় কামালগাজিতে। অ্যামোনিয়া গ্যাসের কটু গন্ধে এলাকা ভরে যায়। ঘটনাস্থলে যায় দমকলের ৪টি ইঞ্জিন ৷ জানা গিয়েছে এই ঘটনায় ছয়জন কর্মী অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গ্যাসের তীব্রতায় অসুস্থ বোধ করতে শুরু করেন দমকলের ২ কর্মী। এলাকায় যায় নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশও। গ্যাস লিক করার খবরে মুহূর্তে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। ওই কাণ্ড দেখে ভিড় জমান আশেপাশের মানুষজন। যার জেরে কিছুটা সাময়িক যানজটেরও সৃষ্টি হয় এলাকায়। যদিও তৎপরতার সঙ্গে সেই যানজট নিয়ন্ত্রণ করে ট্রাফিক পুলিশ।

এদিন, ঠান্ডা পানীয় তৈরির কারখানায় অ্যামোনিয়া গ্যাস লিক করে। এলাকায় গ্যাস ছড়িয়ে পড়তে থাকে। কর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়ায়। সাইরেল বাজানো শুরু হয়। ঝাঁঝালো গন্ধ ছড়িয়ে পড়ায় বাসিন্দারাও আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশ বাহিনী এলাকা ঘিরে ফেলে। একের পর এক দমকলের ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে যায়। কর্মীদেরও কারখানা থেকে বের করে নিয়ে আসা হয়। তবে কিছু সময়ের মধ্যেই ওই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে বলে দমকলের সূত্রে খবর। অ্যামোনিয়া গ্যাসের সিলিন্ডারের যে ভাল্ভ থেকে গ্যাস বের হচ্ছিল সেখানে পৌঁছন দমকল কর্মীরা। রীতিমতো মাস্ক পরে অভিযানে নামেন তাঁরা। গ্যাস লিক হওয়ার জায়গাটি চিহ্নিত করেন দমকলকর্মীরা। শুরু হয় লিক বন্ধ করার চেষ্টা। দমকল সূত্রে খবর আপাতত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে। বন্ধ করা হয়েছে গ্যাস লিক। চলছে কুলিং ডাউন প্রসেস।

আরও পড়ুন- বিশ্বকাপের মঞ্চে প্রতিবাদ, জাতীয় সংগীত গাইলেন না ইরান ফুটবলাররা

Previous articleবিশ্বকাপের মঞ্চে প্রতিবাদ, জাতীয় সংগীত গাইলেন না ইরান ফুটবলাররা