নাড্ডার বঙ্গ সফরকে ‘পরিযায়ী পাখি’ বলে কটাক্ষ কুণালের

জে পি নাড্ডা নিজের রাজ্য হিমাচলে হেরে গেছেন। যে নেতা নিজের দলকে নিজের রাজ্যে ক্ষমতায় রাখতে পারেন না, তিনি একজন ব্যর্থ সংগঠক। বাংলায় এসেছেন নাটক করতে। চিড়িয়াখানার পরিযায়ী পাখি। উনি তো আবার সভায় আসলে মানুষ থাকেন না। আগে নিজের রাজ্যে হারার জবাব দিন

কোন্দলে জেরবার বঙ্গ বিজেপিকে চাঙ্গা করতে বৃহস্পতিবার রাজ্যে এসেছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা।তাঁর এই সফরকে পাল্টা ‘পরিযায়ী পাখি’ বলে কটাক্ষ করলেন তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ।সাংবাদিকদের তিনি বলেন, জে পি নাড্ডা নিজের রাজ্য হিমাচলে হেরে গেছেন। যে নেতা নিজের দলকে নিজের রাজ্যে ক্ষমতায় রাখতে পারেন না, তিনি একজন ব্যর্থ সংগঠক। বাংলায় এসেছেন নাটক করতে। চিড়িয়াখানার পরিযায়ী পাখি। উনি তো আবার সভায় আসলে মানুষ থাকেন না। আগে নিজের রাজ্যে হারার জবাব দিন।

জনসভায় নাড্ডার অভিযোগ প্রসঙ্গে এদিন কুণাল স্পষ্ট বলেন, কেন্দ্রের টাকা মানে কি বিজেপির পৈতৃক সম্পত্তি? রাজ্যের করের টাকা থেকে কেন্দ্র টাকা দেয়। টাকা পাঠাতে মোদি সরকার বাধ্য। বাংলায় হেরে যাওয়ার পরে টাকা পাঠাচ্ছেন না। চক্রান্ত করছেন। কোনও স্কিম মানে, কেন্দ্র একা টাকা দেয় না। রাজ্যও টাকা দেয়। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতিকে তীব্র আক্রমণ করেন কুণাল। তিনি বলেন, নাড্ডা যদি দূর্নীতি নিয়ে বলে থাকেন। তাহলে আগে জেনে রাখুন, ওদের দলের অফিসে ভিডিও দেখিয়ে শুভেন্দুকে চোর বলেছিলেন। নাড্ডার মুখে শোভা পায় না। তাঁদের দলের লোক উপরাষ্ট্রপতি পদে বসে সুপ্রিম কোর্টের উচ্চতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। আমাদের প্রশ্ন থাকলে সসম্মানে করি। কেন্দ্রের রিপোর্টে উল্লেখ কলকাতা সেফেস্ট সিটি৷ আর উনি এসে মনগড়া কথা বলছেন। কেন্দ্রের রিপোর্ট হাতে নিয়ে কথা বলবেন। মিথ্যা কথা বলছেন। আগেও বলছেন৷। পাশে বেইমান নিয়ে বসে আছেন।

কুণালের কটাক্ষ, যাঁদের বিমান পাঠিয়ে নিয়ে গেলেন, তারা এখন অটোতে আবার আমাদের দলে ফিরছে। দলবদলুদের নিয়ে বিজেপি তৈরি। আপনি আগে বলুন নিজের রাজ্যে কেন হেরেছেন? পুরো সংবিধান মেনে সরকার চলছে। সংবিধান মেনে কাজ হচ্ছে৷ দূর্নীতির প্রসঙ্গ উঠলে বিজেপি দলটাই উঠে যাবে।বাংলার মানুষ মুখের ওপর জবাব দিয়েছে। তারপর কোন মুখে বড়বড় কথা বলেন, সেই প্রশ্নও তোলেন কুণাল।

Previous articleবেআইনি ডাম্পার চেকিংয়ের সময় চলল গু*লি! অল্পের জন্য প্রাণরক্ষা সরকারি আধিকারিকদের