হিজাব মামলায় জরুরী শুনানিতে রাজি সুপ্রিম কোর্ট, তিন সদস্যের বেঞ্চ গঠন

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হিজাবের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কর্ণাটক হাইকোর্ট(Karnataka High Court)। এই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে দায়ের হয়েছে মামলা। সোমবার হিজাব মামলার(Hijab Case) জরুরী শুনানির জন্য তিন সদস্যের বেঞ্চ গঠন করলো দেশের শীর্ষ আদালত(Supreme Court)।

হিজাবে নিষেধাজ্ঞার জেরে কর্নাটকে বহু ছাত্রীর একটি বছর নষ্ট হয়েছে। যে ছাত্রীরা পরীক্ষায় বসতে ক্লাসে উপস্থিত হতে পারেনি তাদের পরীক্ষায় বসার অনুমতি চেয়ে আদালতের কাছে আবেদন জানিয়েছিলেন সিনিয়র এডভোকেট মীনাক্ষী আরোরা। তিনি বলেন, আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। অনেক মেয়েকে বাদ পড়তে হয়েছিল। প্র্যাকটিক্যাল পরীক্ষা ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে। এই পরিস্থিতিতে জরুরী কিছু নির্দেশ দরকার যাতে আরও এক বছর নষ্ট না হয়। তার আবেদনের ভিত্তিতেই প্রধান বিচারপতি চন্দ্রচূড় এই মামলাটির জরুরী শুনানির জন্য তালিকাভুক্ত করেন। এবং দ্রুত শুনানোর জন্য তিন সদস্যের বেঞ্চ গঠন করে দেন।

উল্লেখ্য, হিজাব বিতর্ক নিয়ে কর্ণাটক হাই কোর্টের রায়ে অসন্তুষ্ট হয়ে সুপ্রিম কোর্টে দ্বারস্থ হয়েছিলেন মামলাকারীরা। কর্ণাটক হাই কোর্ট এর আগে রায় দেয়, হিজাব মুসলিমদের জন্য বাধ্যতামূলক নয়। সেই ক্ষেত্রে স্কুল বা কলেজের ইউনিফর্ম মেনেই পড়ুয়াকে শ্রেণিকক্ষে ঢুকতে হবে। এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে পড়ুয়ারা শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হন। হিজাব মামলা এবার কোন পথে মোড় নেয় তা দেখতেই সুপ্রিম কোর্টের দিকে নজর থাকবে দেশবাসীর।

Previous articleআইসিসির ২০২২ বর্ষসেরা টি-২০ দলে ভারতের তিন তারকা, দেখে নেওয়া যাক একনজরে